World

ইতিহাস বদলে দেবে পিরামিডের রহস্যময় ঘর, নতুন আবিষ্কারে হতবাক প্রত্নতাত্ত্বিকরাই

পিরামিড যে আজও কতটা অচেনা, কত রহস্য তাতে লুকিয়ে রয়েছে, তা এক একটি আবিষ্কার প্রমাণ করে দেয়। যেমন সবে হওয়া একটি আবিষ্কার প্রত্নতাত্ত্বিকদেরও অবাক করে দিয়েছে।

মিশরের পিরামিড আজও এক রহস্যের নাম। পিরামিড দেখা যায়। অনেক গবেষণা হয়েছে পিরামিড নিয়ে। অনেক তথ্যও জানা গিয়েছে। প্রযুক্তিকে ব্যবহার করে পিরামিডের গোপন কথা জানার চেষ্টা হয়েছে। কিন্তু তারপরেও পিরামিডকে যে পুরোপুরি চেনা হয়ে ওঠেনি তা এক নতুন আবিষ্কার প্রমাণ করে দিল। হয়তো পিরামিডে এমন অনেক সত্য লুকিয়ে আছে যা মানুষ আগামী দিনে জানতে পারবে।

মিশর ও জার্মানির যৌথ একটি প্রত্নতাত্ত্বিকদের দল মিশরের গিজা প্রদেশের সাহুরে পিরামিডে খোঁজ চালাতে গিয়ে পিরামিডের মধ্যে ৮টি ঘরের সন্ধান পেয়েছে। ঘরগুলি দলটির সদস্যদের অবাক করে দিয়েছে।

খতিয়ে দেখে প্রত্নতাত্ত্বিকরা জানতে পেরেছেন ঘরগুলি আসলে স্টোর রুম বা জিনিসপত্র রাখার ঘর হিসাবে ব্যবহার হত। পিরামিডের মধ্যে এমন ৮টি ঘরের স্টোর রুম এর আগে দেখা যায়নি।

এই ৮টি ঘরের মধ্যে উত্তর ও দক্ষিণ অংশ প্রবলভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে দেওয়ালগুলি দাঁড়িয়ে আছে। এই অবস্থাতেই সেগুলির খোঁজ পাওয়ার পর বিজ্ঞানীরা ত্রিমাত্রিক লেজার স্ক্যানিং প্রযুক্তি ব্যবহার করে ৮টি ঘর ঠিক কেমন ছিল তা জানতে পেরেছেন।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, এই আবিষ্কার কার্যত পিরামিডের ইতিহাস বদলে দেবে। আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ২৪০০ বছর আগে এই পিরামিড তৈরি হয়েছিল। সে সময় রাজা ছিলেন সাহুরে।

এই নতুন আবিষ্কারের কথা ছড়িয়ে পড়ার পর এই ৮টি ঘর সাধারণ মানুষের দেখার জন্য দ্রুত খুলে দেওয়া হবে বলেই জানতে পারা যাচ্ছে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button