World

গিজার পিরামিডের সামনে অশ্লীল ফটোগ্রাফি, গ্রেফতার পর্যটক

মিশরের বিখ্যাত পর্যটন ক্ষেত্র গিজার পিরামিডের সামনে প্যান্ট খুলে পশ্চাতদেশ উন্মুক্ত করে ছবি তুলছিলেন এক মার্কিন পর্যটক। যা সেখানে উপস্থিত সুরক্ষাকর্মীদের নজরে পড়ে। তখনই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। ওই পর্যটকের সঙ্গে ভ্রমণ করা অন্য মার্কিন নাগরিককেও গ্রেফতার করে পুলিশ। তাঁদের কাছে নাকি সে সময় পাসপোর্ট পর্যন্ত ছিলনা। পরে তাঁদের ছেড়ে দেওয়া হলেও গিজার মত পর্যটন ক্ষেত্রে এমন অভব্য আচরণের জন্য তাঁদের মাথা পিছু ৫ হাজার মিশরীয় পাউন্ড জরিমানা গুণতে হয়।

ওই মার্কিন পর্যটক পিরামিড চত্বরের মধ্যেই পশ্চাতদেশ উন্মুক্ত করে ছবি তোলার চেষ্টা করছিলেন। পুলিশ তাঁকে সেই অবস্থায় গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পরে দেখা যায় ওই পর্যটক মদ্যপ অবস্থায় রয়েছেন। পুলিশের ধারণা মদ্যপ অবস্থায় থাকায় তাঁর হুঁশই ছিলনা যে তিনি পাবলিক প্লেসে পিরামিডের সামনে কী ধরণের অশ্লীল আচরণ করছেন।

এমন ঘটনা অবশ্য নতুন নয়। এর আগে ২০১৮ সালে গিজার বিখ্যাত পিরামিডের ওপর সর্বসমক্ষে সঙ্গমে লিপ্ত হন ডেনমার্কের এক তরুণ-তরুণী। তাঁদের সেই সঙ্গম তাঁরা ভিডিও করেও রাখেন। ২০১৫ সালে গিজার সামনে যৌন বিষয়ক ছবি তোলার ঘটনা গোটা মিশরে আলোড়ন ফেলে দেয়। সমালোচনার ঝড় ওঠে।

২০১৭ সালে আবার মিশরের লাক্সর শহরের কারনাক মন্দিরে এক বেলজিয়ান মডেলকে সম্পূর্ণ উলঙ্গ অবস্থায় পাওয়া যায়। তাঁর সঙ্গে এক ফটোগ্রাফারও ছিলেন। তিনি ওই নগ্ন মডেলের ছবি তুলছিলেন বিভিন্ন দিক থেকে। কারনাক মন্দিরের মধ্যে এমন ঘটনায় তাঁদের দুজনকেই গ্রেফতার করে পুলিশ। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button