SciTech

ড্রাগন ম্যান, মানুষের নতুন পূর্বপুরুষের খোঁজ পেলেন বিজ্ঞানীরা

মানুষের সবচেয়ে কাছের আত্মীয় কারা ছিলেন? এ প্রশ্নের উত্তরে অনেকেই বলবেন নিয়ানডার্থালরা। সেই ধারণা ভেঙে দিল নতুন গবেষণা।

মানুষকে হোমো স্যাপিয়েন্স বলা হয়। বিজ্ঞানীরা এবার খোঁজ পেলেন সেই মানুষের সবচেয়ে কাছের আত্মীয়ের। অর্থাৎ বিবর্তনের ধারায় হোমো স্যাপিয়েন্স তৈরির আগেই কারা ছিলেন মানুষের পূর্বপুরুষ, তারই হদিশ পেলেন তাঁরা।

এমন নয় যে আগে কোনও ধারণাই ছিলনা এ বিষয়ে। মনে করা হয় মানুষের সবচেয়ে কাছের পূর্বপুরুষ ছিলেন নিয়ানডার্থালরা। কিন্তু নতুন এই গবেষণা সেই ধারণা ভেঙে দিল।

বিজ্ঞানীরা চিনে একটি মস্তিষ্কের জীবাশ্ম পেয়েছেন। যা পর্যালোচনা করার পরই তাঁরা নতুন সিদ্ধান্তে উপনীত হয়েছেন। প্রথমত বিজ্ঞানীরা এখনও পর্যন্ত বিবর্তনের পথে যত মানুষের জীবাশ্ম পেয়েছেন তার মধ্যে এটিই সবচেয়ে বড়।

বিজ্ঞানীরা বলছেন এটা মনুষ্য প্রজাতির এক নতুন প্রকার। যার তাঁরা নাম দিয়েছে হোমো লংগাই। এই হোমো লংগাইকেই বলা হচ্ছে ড্রাগন ম্যান।

বিজ্ঞানীরা মনে করছেন আধুনিক মানুষ তৈরির আগে বিবর্তনের ধারায় এই ড্রাগন ম্যানই ছিল আধুনিক মানুষ তৈরি হওয়ার ঠিক আগের প্রকার। কেন এমনটা মনে হল?

বিজ্ঞানীদের মতে, এই হারবিন ক্রেনিয়াম জীবাশ্মটি হল আজ পর্যন্ত পাওয়া মনুষ্য বিবর্তনের মস্তিষ্কের মধ্যে সবচেয়ে সম্পূর্ণ। যার মাথায় একটি সম্পূর্ণ মানুষের মস্তিষ্ক ঢোকার মত জায়গা রয়েছে।

রয়েছে অতিরিক্ত বড় দাঁত। বড় মুখ গহ্বর। কিছুটা চৌকো ধরণের চোখের জায়গা। যা থেকে বিজ্ঞানীদের ধারণা বিবর্তনের ধারায় এটিই হল মানুষের সবচেয়ে কাছের পরিজন। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button