World

ফের চিনা দাদাগিরি, লাদাখ সীমান্তে বোমারু বিমানের পরীক্ষা

নতুন বোমারু বিমান তৈরি করেছে চিন। তারই পরীক্ষা করতে তারা বেছে নিল লাদাখ সীমান্তকে। একে চিনা দাদাগিরি হিসাবেই দেখছেন আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞেরা।

ভারত ও চিনের মধ্যে সীমান্ত সমস্যা মিটে গেছে এমনটা নয়। গত বছর লাদাখ সীমান্তে মুখোমুখি হয়ে পড়েছিল ২ দেশের সৈন্যবাহিনী। পরে তা আলোচনার মধ্যে দিয়ে কিছুটা মিটলেও সীমান্তে ভারত নিজেদের সীমান্ত রক্ষায় কড়া নজর রেখেছে।

এবার সেই লাদাখ সীমান্তে এসেই তাদের নয়া বোমারু বিমান জিয়ান এইচ-২০-র পরীক্ষা শুরু করেছে চিন। গত ৮ জুন থেকে এই পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

জায়গা অনেক ছিল। তা সত্ত্বেও ভারতীয় সীমান্তে এসে চিনের এই বোমারু বিমান পরীক্ষাকে ভাল চোখে নিচ্ছে না ভারত। লাদাখ সীমান্তের কাছে হোতান এয়ারবেস থেকে এই পরীক্ষা হচ্ছে। জানা যাচ্ছে আগামী ২২ জুন পর্যন্ত এই পরীক্ষা চলবে।

জিয়ান এইচ-২০ এমন একটি বোমারু বিমান যা নিঃশব্দে উড়তে পারে। অনেক ভারী বোমা নিয়ে উড়ে যেতে পারে এই বিমান। ফ্রান্সের কাছ থেকে ৩৬টি রাফাল বিমান কিনছে ভারত। সেই রাফালের রাডার নিষ্ক্রিয়তা ক্ষমতাকে এড়িয়ে যাওয়ার ক্ষমতা রাখে এই চিনা বম্বার।

এছাড়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও রাশিয়ার পর চিনই হল এমন দেশ যারা এবার নিঃশব্দে উড়তে পারা বোমারু বিমান তৈরি করে ফেলল।

শুধু ভারত বলেই নয়, চিনের হাতে এই নয়া বোমারু বিমান আসায় তারা তাইওয়ান বা দক্ষিণ চিন সাগরেও তাদের দাদাগিরি বজায় রাখার শক্তি বৃদ্ধি করল। এমনকি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রকেও চিন এই বোমারু বিমান বানিয়ে চাপে রাখল। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button