Business

চুল কাটার ভুলে হোটেলকে গুনতে হবে ২ কোটি টাকা

এক মহিলার চুল কাটায় ভুল ছিল। সেজন্য ক্ষতিপূরণ বাবদ দেশের এক হোটেলকে গুনে গুনে গ্রাহককে দিতে হবে ২ কোটি টাকা।

এক মহিলা দিল্লির বিখ্যাত পাঁচতারা হোটেল আইটিসি মৌর্য-তে ছিলেন। ওই হোটেলের সে সেলুন রয়েছে সেখানে তিনি চুল কাটতে যান।

সেদিন ছিল ওই মহিলার তাঁর সংস্থার হয়ে একটি ইন্টারভিউতে বসার দিন। তাই ওইদিন তাঁর চুলের সৌন্দর্য আরও বাড়াতে চাইছিলেন তিনি।

সেলুনে যে হেয়ারড্রেসার ছিলেন তাঁকে তিনি কেমন চুল চাইছেন তা বলে নিশ্চিন্ত হয়ে যান। কিন্তু চুল কাটা শেষ হওয়ার পর দেখা যায় তাঁর চুলের প্রায় সবই কাটা হয়ে গেছে। ঘাড়ের কাছে আসা চুল সাকুল্যে ৪ ইঞ্চি লম্বা। তাঁর বিশাল চুল মাটিতে লুটোচ্ছে।

কার্যত আঁতকে ওঠেন আশনা রায় নামে ওই মহিলা। এমন হেয়ারকাট তো তিনি চাননি! কিন্তু তখন আর কিছু করার নেই। কার্যত তাঁর সব চুল কেটে ফেলেছেন ওই অদক্ষ হেয়ারড্রেসার।

এখানেই শেষ নয়, চুল কাটার পর তাঁর হেয়ার ট্রিটমেন্ট করা হয়। যা করতে গিয়ে তাঁর স্কাল্প অর্থাৎ মাথার চামড়া পুড়ে যায়। যা থেকে একটা চুলকানি এখনও তাঁকে বেদনা দেয়।

এই ঘটনার পর আশনা রায় এতটাই মানসিকভাবে ভেঙে পড়েন যে তিনি তাঁর চাকরি ছেড়ে দেন। মানুষের সঙ্গে মেশা বন্ধ করে দেন। মানসিক দিক থেকে ক্রমশ তিনি অবসাদে চলে যেতে থাকেন।

বিষয়টি নিয়ে ক্ষুব্ধ আশনা রায় এরপর ন্যাশনাল কনজিউমার ডিসপিউট রিড্রেসাল কমিশনে হাজির হন। ঘটনাটি ঘটেছিল ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে। সেই ঘটনার এতদিন পর রায় দিল কমিশন।

কমিশনের তরফে আশনা রায়ের মানসিক অবস্থা তুলে ধরে জানানো হয় যে কোনও মহিলার কাছে চুল একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। তাঁরা তা ভাল রাখার জন্য যথেষ্ট অর্থও ব্যয় করে থাকেন। সেখানে এমন ঘটনা কখনই মেনে নেওয়া যায়না।

এজন্য আশনা রায়কে ২ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে কমিশন। যা আইটিসি মৌর্যকে মেটাতে হবে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button