Business

রান্নাঘরে স্বস্তি দিয়ে তেলের দাম কমছে, আরও কমার ইঙ্গিত

সরষের তেল থেকে তথাকথিত সাদা তেল, ২০০-র কাছে পৌঁছে যাওয়া তেলের দামে নাভিশ্বাস ওঠা মানুষের হেঁশেলে স্বস্তি দিয়ে নামছে তেলের দাম।

গত এক বছরে ভোজ্য তেলের দাম যেভাবে হুহু করে বেড়েছে তাতে সাধারণ মানুষের নাভিশ্বাস ওঠার জোগাড় হয়েছে। গত মে মাসেও সরষের তেলের দাম ঘোরাফেরা করেছে প্রায় ২০০ টাকার কাছে। শহর ভিত্তিতে তেলের দাম কিছুটা এদিক ওদিক হলেও কলকাতায় সরষের তেলের দাম ২০০-র দরজায় পৌঁছে গিয়েছিল।

একইভাবে প্রায় ২০০ ছুঁই ছুঁই করছিল সূর্যমুখী তেলের দাম। তুলনায় কিছুটা কম ছিল রাইস ব্র্যান বা সয়াবিন তেলের দাম। এভাবে দাম বাড়ায় বাজেট ওলটপালট হয়ে গিয়েছে অনেক পরিবারে। অনেকে তেলের ব্যবহার কমিয়ে ফেলেছেন বাড়িতে।

তেলের এই অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে বিভিন্ন মহলে প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছিল। এবার সেই ভোজ্য তেলের বিভিন্ন ধরনের দাম কিছুটা হলেও কমল। দাম আরও কিছুটা কমার ইঙ্গিত রয়েছে।

কেন্দ্রীয় উপভোক্তা মন্ত্রক জানাচ্ছে গত এক মাসে প্রায় ২০ শতাংশ দাম কমেছে ভোজ্য তেলের। মুম্বই শহরে তেলের দামকে সামনে রেখে তারা জানাচ্ছে পাম অয়েলের দাম ১৯ শতাংশ কমেছে, সূর্যমুখী তেলের দাম কমেছে ১৬ শতাংশ, সয়াবিন তেলের দাম ১৫ শতাংশ কমেছে, সরষের তেলের দাম ১০ শতাংশ কমেছে, বাদাম তেলের দাম কমেছে ৮ শতাংশ।

কলকাতার বাজারেও তেলের দাম নিম্নগামী। যা অবশ্যই আশার আলো জাগিয়েছে সাধারণ মানুষের মনে। কারণ রান্নায় তেল লাগেই।

যে কোনও হেঁশেলের অবশ্য প্রয়োজনীয় এই বস্তুটির দাম যেখানে পৌঁছেছিল তাতে তা কার্যত মানুষের ধরা ছোঁয়ার বাইরে যেতে বসেছিল। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More
Back to top button