Business

ধনী বোঝাতে টাটা-বিড়লা বলার দিন শেষ

নবাবপুত্তুর অথবা টাটা-বিড়লা। এই ছিল আম ভারতবাসীর কাছে অতিধনীর চেনা নাম। কিন্তু সেই মিথ আজ আর নেই।

নয়াদিল্লি : কোথাকার নবাবপুত্তুর এলেন রে! অথবা ধরা যাক টাটা-বিড়লার মত মেজাজ। আম বাঙালির মুখে আজও একথা শোনা যায়। শ্লেষ থেকেই হোক বা ব্যঙ্গ করেই হোক। অতি মাত্রায় ধনী বলতে ভারতীয়দের কাছে এখনও ২টি শব্দ বহুল প্রচলিত। টাটা এবং বিড়লা।

স্বাধীনতা পরবর্তী ভারতে এই ২টি নামের মাহাত্ম্যই শুধু নয়, ব্যবসায়ী ভারতের ছবিটা সারা বিশ্বের সামনে এঁরাই তুলে ধরেছিলেন। কিন্তু সময়ের সঙ্গে সবই পাল্টায়।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

বিশ্বের সেরা ধনীদের তালিকাই হোক বা ভারতের সেরা ধনীদের তালিকা। তা এখনও প্রকাশ করে ফোর্বস পত্রিকা। বিশ্বখ্যাত এই ফোর্বস পত্রিকা এবার ২০২১ সালে ভারতের সেরা ধনীদের যে নামের তালিকা দিয়েছে তাতে প্রথম ৫-এ নেই টাটা বা বিড়লারা। সেখানে অবশ্য প্রথম স্থান দখলে রয়েছে আরআইএল-এর প্রধান মুকেশ আম্বানির। মুকেশ আম্বানি অবশ্য বিশ্বের সেরা ধনীদের মধ্যেও ১০ নম্বরে রয়েছেন।

মুকেশ আম্বানির পরই রয়েছে আদানিদের নাম। আদানি গোষ্ঠীর সম্পদের পরিমাণ ৫০.৫ বিলিয়ন ডলার। যদিও তা আম্বানির মোট সম্পদের চেয়ে অনেক নিচে। আম্বানিদের মোট সম্পদের পরিমাণ ৮৪.৫ বিলিয়ন ডলার। তৃতীয় স্থানে রয়েছেন এইসিএল-এর প্রতিষ্ঠাতা শিব নাদার। তাঁর সম্পদের পরিমাণ ২৩.৫ বিলিয়ন ডলার।

চতুর্থ স্থানে রয়েছেন অ্যাভিনিউ সুপারমার্টস–এর প্রতিষ্ঠাতা রাধাকৃষ্ণণ দামানি। তাঁর সম্পদের পরিমাণ ১৬.৫ বিলিয়ন ডলার। পঞ্চম স্থানে রয়েছেন কোটাক মহিন্দ্রা ব্যাঙ্কের ম্যানেজিং ডিরেক্টর উদয় কোটাক। তাঁর সম্পদের পরিমাণ ১৫.৯ বিলিয়ন ডলার।

ষষ্ঠ স্থানে রয়েছেন প্রবাসী ভারতীয় শিল্পপতি লক্ষ্মী মিত্তল। তাঁর মোট সম্পদের পরিমাণ ১৪.৯ বিলিয়ন ডলার। এরপর সপ্তম স্থানে রয়েছেন কুমারমঙ্গলম বিড়লা। যাঁর মোট সম্পদের পরিমাণ ১২.৮ বিলিয়ন ডলার। সেই বিড়লা গোষ্ঠী, যাদের নাম ভারতের সেরা ধনী বলে মিথ হয়ে এখনও মানুষের মুখে মুখে ঘোরে।

ভারতের ভ্যাক্সিন কিং সাইরাস পুনাওয়ালা রয়েছেন অষ্টম স্থানে। নবম স্থানে রয়েছেন দিলীপ সাংভি। যাঁদের মূল ব্যবসা ফার্মাসিউটিক্যালস। দশম স্থানে রয়েছে ভারতী এয়ারটেল-এর সুনীল মিত্তল পরিবার। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button