Business

পেনশন প্রাপকদের জন্য স্বস্তির খবর শোনাল কেন্দ্র

কেন্দ্রীয় সরকারি পেনশন প্রাপকের সংখ্যা দেশে নেহাত কম নয়। তাঁদের সকলের জন্য করোনা পরিস্থিতিতে স্বস্তির খবর শোনাল কেন্দ্রীয় সরকার।

নয়াদিল্লি : করোনা পরিস্থিতিতে ৬০ বছরের ওপরে যাঁদের বয়স তাঁদের বাড়ি থেকে বার হওয়া এড়িয়ে চলার পরামর্শ স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীই দিয়েছেন। করোনা পরিস্থিতিতে সংক্রমণের শিকার হওয়ার সম্ভাবনা বয়স্কদের ক্ষেত্রে যথেষ্ট বেশি। অনেক বৃদ্ধ বৃদ্ধার অন্য নানা শারীরিক সমস্যাও থাকে। যার ওপর করোনা কোনওভাবে সংক্রমিত হলে ভয়ংকর হতে পারে। এদিকে সেপ্টেম্বর চলছে। মাঝে অক্টোবর পার করলে নভেম্বর। সরকারি পেনশন প্রাপকদের ক্ষেত্রে এই নভেম্বর অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ মাস। কারণ এই মাসেই পেনশন যে ব্যাঙ্ক থেকে পান সেখানে জীবন প্রমাণ বা লাইফ সার্টিফিকেট জমা দিতে হয়।

লাইফ সার্টিফিকেটের ক্ষেত্রে ব্যাঙ্কে যাওয়া জরুরি। কিন্তু এই করোনা পরিস্থিতিতে নভেম্বরের মধ্যেই সময় করে সব বিধিনিষেধ মাথায় রেখে ব্যাঙ্কে হাজির হওয়া বা ভিড়ের মধ্যে পড়া পেনশন প্রাপকদের জন্য ঝুঁকির হতে পারে। তাই কেন্দ্রীয় সরকার এবার কেন্দ্রীয় সরকারি পেনশন প্রাপকদের ক্ষেত্রে জীবন প্রমাণ দাখিল করার সময়সীমা বাড়াল। যা তাঁদের অনেকটা সময় দেবে এই প্রমাণ দাখিল করার ক্ষেত্রে।

নিয়ম হল নভেম্বরের ১ তারিখ থেকে ৩০ তারিখের মধ্যেই এই জীবন প্রমাণ সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্কের শাখায় জমা দিতে হয়। কিন্তু এবার কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে জানানো হয়েছে নভেম্বরের ১ থেকে এই প্রমাণ দাখিলের সুযোগ কেন্দ্রীয় সরকারি পেনশন প্রাপকরা ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত পাবেন। আবার ৮০ বছরের ওপর যেসব পেনশন প্রাপকের বয়স তাঁদের ক্ষেত্রে সময়টা ৩ মাস। অক্টোবর ১ থেকে ডিসেম্বরের ৩১ তারিখের মধ্যে লাইফ সার্টিফিকেট জমা দেওয়ার সুযোগ রয়েছে তাঁদের জন্য। এই ডিসেম্বর ৩১ পর্যন্ত কোনওভাবেই কেন্দ্রীয় সরকারি পেনশন প্রাপকদের পেনশন বন্ধ হবে না।

রিজার্ভ ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া চলতি বছরের জানুয়ারিতেই ভিডিও মারফত গ্রাহক পরিচিতি ব্যবস্থা চালু করায় ছাড়পত্র দিয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার এই বন্দোবস্ত পেনশনের অর্থ পেনশন প্রাপকের হাতে তুলে দেওয়া ব্যাঙ্কগুলিকেও রপ্ত করতে পরামর্শ দিয়েছে। সেক্ষেত্রে অনুমতির ভিত্তিতে জীবন প্রমাণের ক্ষেত্রে এই ভিডিও মারফত গ্রাহক পরিচিতি নিশ্চিত হওয়া এবং ওই ব্যক্তি যে জীবিত তা নিশ্চিত হওয়ার রাস্তা খুলতে পারে। যা বয়স্ক মানুষদের জন্য উপকারিও হয়ে উঠতে পারে। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button