Lifestyle

মডেলের শরীর ছুঁতেই তরল স্প্রে হয়ে গেল অফ শোল্ডার পোশাক

তিনি যখন ব়্যাম্পে হাঁটছিলেন তখন কারও সাধ্য ছিলনা এটা বোঝার যে কিছুক্ষণ আগেও পোশাক বলে কিছু ছিলনা। ছিল কেবল তরল স্প্রে।

ফ্যাশন দুনিয়ায় প্যারিস ফ্যাশন উইকে কোনও ডিজাইনারের সৃষ্টি তুলে ধরা বা কোনও মডেলের ব়্যাম্পে হাঁটা এক পরম প্রাপ্তি হিসাবে বিবেচিত হয়। সেখানেই এক অন্য সৃষ্টিকে রূপ দিলেন মডেল বেলা হাদিদ।

বেলা হাদিদ প্রায় পোশাকহীন অবস্থায় এসে দাঁড়ান। পরনে ছিল এক টুকরো পোশাক। যা তাঁর নিম্নাঙ্গ ঢেকে রেখেছিল। স্তন নিজের হাত দিয়ে ঢেকে রেখেছিলেন বেলা।

২ জন পুরুষ বেলার দেহে স্প্রে ছড়াতে শুরু করেন। মাকড়সার জালের মত ঘন জালিকা তৈরি করে স্প্রে ছড়িয়ে পড়তে থাকে শরীর জুড়ে।

সাদা রংয়ের তরল ছড়িয়ে পড়তে থাকে বুকে, পেটে, কোমরে, উরুতে। স্তনও ঢাকা পড়ে যায় ওই তরলেই। এভাবে স্প্রে দিয়ে ভরিয়ে ফেলার পর ১৫ মিনিটের অপেক্ষা। তারপর এক মহিলা সেখানে হাজির হন। ততক্ষণে তরল স্প্রে জমাট বেঁধে কাপড়ের রূপ নিয়েছে।


একে বলা হচ্ছে ফ্যাবরিকান। এটি এক ধরনের তরল ফাইবার। পলিমার, বায়ো পলিমার এবং গ্রিনার সলভেন্টের মিশ্রণে তৈরি এই তরল ফাইবার ১৫ মিনিটে কাপড়ের চেহারা নেয়।

এবার ওই মহিলা এসে কিছুটা অংশ কেটে ফেলে দেন। তারপর কাঁধের কাছ থেকে পোশাকের অংশ নামিয়ে পোশাকটিকে অফ শোল্ডার রূপ দিয়ে দেন। যেন একটা কাপড়ের অংশকেই নামানো হল।

কে বলবে যে এটা ১৫ মিনিট আগেও তরল স্প্রে ছিল! পোশাক তৈরির পর সেটা পরেই ব়্যাম্পে হেঁটে যান মডেল বেলা হাদিদ। যা একটি ফ্যাশন প্যারেডের অংশ হলেও আদপে বিজ্ঞানের নতুন চমক।

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button