Feature

প্রাচীন নিয়ম, এ গ্রামে বিয়েতে পণ নিলে পড়তে হয় অন্যরকম শাস্তির মুখে

আইনতই পণ নেওয়া যায়না। তবে এ গ্রাম সেই আইনের পরেও নিজেদের আইন তৈরি করেছে। এখানে পণ নিয়ে ফেললে পড়তে হয় অদ্ভুত শাস্তির মুখে।

ভারতে পণ নেওয়া বেআইনি। তবু বিয়েতে পণ দেওয়া নেওয়া যে হয়না এমনটাও নয়। প্রচলিত প্রথা হয়ে উঠেছে এই পণপ্রথা। তবে তার মধ্যেও কার্যত প্রতিবাদের ভাষা হয়ে উঠেছে একটি গ্রাম।

এ গ্রামে কেউ জোর করে পণ দেওয়ানেওয়া বন্ধ করেনি। গ্রামবাসীরা নিজেরাই সিদ্ধান্ত নিয়ে বহুকাল ধরে গ্রামে পণ দেওয়া বা নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন।


পড়ুন আকর্ষণীয় খবর, ডাউনলোড নীলকণ্ঠ.in অ্যাপ

যদি তারপরেও এ গ্রামে বিয়েতে পণ নেওয়ার ঘটনা ঘটে তাহলে যে শাস্তির মুখে পরিবারকে পড়তে হয় তা তাদের সারা জীবনটা দুর্বিষহ করে তোলে।

শহরের মানুষ নিজেদের অনেক বেশি প্রগতিশীল মনে করলেও এই গ্রাম ভারতে সত্যিকারের প্রগতিশীল মানসিকতার এক উদাহরণ হয়ে উঠেছে। গ্রামটির নাম বাবাওয়াইল।

ছোট গ্রামটি কাশ্মীরের অপরূপ প্রকৃতির বুকে অবস্থিত। যেখানে বিয়ে হয় বটে তবে তা হয় অত্যন্ত সাদামাটা ভাবে। এটাই এই গ্রামের অলিখিত নিয়ম। যা পরম্পরা ধরে মেনে চলা হচ্ছে।

বিয়েতে ইচ্ছা থাকলেও আড়ম্বর কেউ যেমন করতে পারবেননা, তেমনই বিয়েতে পণ নেওয়া যাবেনা। যদি কেউ পণ নেন তাহলে তাঁকে একঘরে করা হবে।

তাঁর পুরো পরিবারকে সামাজিক বয়কটের মুখে পড়তে হবে গ্রামে। তাঁদের সঙ্গে কেউ যোগাযোগ রাখবেন না। তাঁদের সঙ্গে কেউ সম্পর্ক রাখবেন না। এ এক অনন্য উদাহরণ গোটা দেশের জন্য। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *