Entertainment

বলিউড অভিনেতার বিরুদ্ধে লিভ ইন পার্টনারকে মেরে রক্তাক্ত করার অভিযোগ

বেশ কিছুদিন ধরেই ফ্যাশন দুনিয়ার সঙ্গে যুক্ত নীতু রানধাওয়ার সঙ্গে লিভ ইন সম্পর্কে লিপ্ত বলিউড অভিনেতা আরমান কোহলি। এবার সেই লিভ ইন পার্টনারকে মারধরের অভিযোগে পুলিশে তাঁর নামে মামলা রুজু হল। পুলিশ আরমান কোহলিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠিয়েছে।

দুজনের মধ্যে আর্থিক বিষয় নিয়ে গত রবিবার প্রবল ঝগড়া শুরু হয়। অভিযোগ, সেইসময়ে রাগের মাথায় আরমান লিভ ইন পার্টনার নীতুকে ঠেলে সিঁড়িতে ফেলে দেন। তারপর তাঁর চুলের মুঠি ধরে মাথা ঠুকে দেন মেঝেতে। এতে নীতু রানধাওয়ার মাথা ফেটে যায়। তাঁকে দ্রুত রক্তাক্ত অবস্থায় মুম্বইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তাঁর মাথায় ১৫টি সেলাই পড়ে। আপাতত নীতু রানধাওয়া হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেও তাঁর চোট গুরুতর।

সান্তাক্রুজ থানায় আরমান কোহলির বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন নীতু রানধাওয়া। পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে। ১৯৯২ সালে চিত্র পরিচালক রাজকুমার কোহলির ছেলে আরমান কোহলি প্রথম বলিউডে ব্রেক পান। সে বছর মুক্তি পায় তাঁর ছবি ‘বিরোধী’। তারপর ‘জানি দুশমন’, ‘এলওসি: কার্গিল’-এর মত সিনেমায় তাঁকে দেখতে পাওয়া যায়। কিন্তু ২০০৩ সালের পর তাঁকে আর সেভাবে সিনেমার পর্দায় দেখতে পাওয়া যায়নি। পর্দায় ফিরে আসেন সলমন-সোনম অভিনীত ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ ছবি দিয়ে। এবার হারিয়ে যাওয়া সেই অভিনেতার নাম উঠে এল নারী নির্যাতনে যুক্ত হিসাবে।

(ছবি – সৌজন্যে – ইন্সটাগ্রাম)


Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button