Entertainment

তাঁর টাকা হজম করেছে ট্যুইটার, মজার ছলে ট্যুইটারকে একহাত নিলেন অমিতাভ বচ্চন

মাইক্রো ব্লগিং সাইট হিসাবে বিশ্বখ্যাত ট্যুইটারকে এবার ঘুরিয়ে কথা শোনালেন অমিতাভ বচ্চন। মজার ছলে শুনিয়ে দিলেন তাঁর টাকা হজম করেছে ট্যুইটার।

কয়েকদিন আগেই দেখা যায় ট্যুইটার থেকে অনেক বিখ্যাত ব্যক্তিরও নীল টিক উঠে গেছে। তা আর নেই। ট্যুইটারে নীল টিক মানে সেটি ভেরিফায়েড অ্যাকাউন্ট। ট্যুইটার ভেরিফায়েড সেটি। তাতে সেই ট্যুইটার হ্যান্ডলটির মান্যতা বৃদ্ধি পায়।

সেই নীল দাগই আচমকা উধাও হয়ে যায় অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে রাহুল গান্ধীর। বিরাট কোহলি থেকে শুরু করে বিল গেটসের নীল দাগও মুছে দেয় ট্যুইটার।

ট্যুইটার কর্তা ইলন মাস্ক আগেই জানিয়ে দিয়েছিলেন ট্যুইটারের নীল দাগ পরিষেবা পেতে গেলে টাকা খরচ করতে হবে। যাঁরা ট্যুইটারকে সেই টাকা দেননি, তাঁদের নীল দাগ মুছে দেয় ট্যুইটার। যাঁদের মধ্যে বহু প্রখ্যাত মানুষ পড়েন।

অমিতাভ বচ্চন অবশ্য নীল দাগ ওঠার পর ট্যুইটারকে নীল দাগ পরিষেবা ফেরানোর জন্য যে টাকা দেওয়ার দিয়ে দেন। নীল দাগ ফিরে আসে। তারপর দেখা যায় ট্যুইটার টাকা না নিয়েও যাঁদের ১০ লক্ষের ওপর ট্যুইটারে ফলোয়ার আছে তাঁদের কয়েকজনের নীল দাগ ফিরিয়ে দেয়। এটা দেখার পর অমিতাভ কার্যত মজার ছলেই ট্যুইটারকে এক হাত নিয়েছেন।


অমিতাভ হিন্দিতে ট্যুইট করেই লিখেছেন, আরে মারে গায়ে গুলফাম, বিরজ মে মারে গায়ে গুলফাম, এ, ট্যুইটার মৌসি, চাচি, বহনি, তাই, বুয়া, ঝৌয়া ভর কে তো নাম হ্যায় তুম্হার, পয়সা ভরবা লিয়ে হামারে, নীল কমল খাতির, আব কহত হো জেকর ১ মিলিয়ন ফলোয়ার উনকর নীল কমল ফ্রি মে, হামার তো ৪৮.৪ মিলিয়ন হ্যায়, আব?? খেল খতম, পয়সা হজম?

মজা করে লেখা হলেও মোদ্দা কথা হল তাঁর টাকা নিয়ে নিয়ে এখন ট্যুইটার জানাচ্ছে ১ মিলিয়ন ফলোয়ার থাকলে নীল দাগ ফ্রি? তাঁর তো ৪৮.৪ মিলিয়ন ফলোয়ার আছে, তাহলে তাঁর ক্ষেত্রে কি হবে? অমিতাভের ব্যঙ্গ, পয়সা তো একবার নিয়ে নেওয়া হয়েছে। আর কি! — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button