Kolkata

রাজ্যে বছরের শেষে শৈত্যপ্রবাহ, বছরের শুরুতে বৃষ্টি

বছর শেষের আনন্দটা দারুণ একটা কনকনে ঠান্ডায় গা মুড়ে কাটাতে চান সকলেই। ওই সময় খুব গরম বা বৃষ্টি হলে মোটেও কারও মন ভাল থাকতে পারেনা। কলকাতা সহ গোটা বঙ্গে সেই ঠান্ডাটাই থাকতে চলেছে। এমনই পূর্বাভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। এমনকি রাজ্যের বেশ কিছু জেলায় শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাসও রয়েছে। পুরুলিয়া, বাঁকুড়া ও বীরভূমে শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা তো রয়েছেই, সেইসঙ্গে দক্ষিণবঙ্গের অন্য অনেক জেলাও এই শৈত্যপ্রবাহের শিকার হতে পারে। এমনকি শহর কলকাতাও সেই আঁচ পেতেই পারে। ফলে হাড় কাঁপানো পরিস্থিতির জন্য রাজ্যের বেশ কিছু জেলাকে তৈরি থাকতে হবে।

প্রসঙ্গত শৈত্যপ্রবাহ মানে স্বাভাবিকের চেয়ে যদি সেদিনের পারদ ৫ ডিগ্রির কম থাকে তাহলে তাকে শৈত্যপ্রবাহ বলে ধরা হয়ে থাকে। এদিকে দক্ষিণবঙ্গে যখন শৈত্যপ্রবাহের পূর্বাভাস তখন উত্তর অতি ঘন কুয়াশার চাদরে ঢাকা পড়বে। এখনও সেই পরিস্থিতিই রয়েছে। এদিন দার্জিলিংয়ের পারদ নেমেছে ১.৬ ডিগ্রিতে। শিলিগুড়ি ৫ ডিগ্রি। কনকনে ঠান্ডা আর ঘন কুয়াশায় ঢাকা পড়েছে উত্তরবঙ্গের জেলাগুলি। রাজ্যের অধিকাংশ জেলার পারদ ১০ ডিগ্রি বা তার নিচে ঘোরাফেরা করছে।

বছরের শেষটা যদি দারুণ ঠান্ডায় কাটে তো বছরের শুরুটা কিন্তু বৃষ্টি দিয়েই শুরু হতে পারে। তেমনই পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। পশ্চিমী ঝঞ্ঝার কারণে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে বৃষ্টির সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। পয়লা জানুয়ারি কলকাতায় বৃষ্টি না হলেও‌ পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতে বৃষ্টি হতে পারে। কলকাতা সহ তার আশপাশের জেলায় জানুয়ারির ২ তারিখ বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ফলে বছরের শুরুতেই ফের ভিজতে পারে বাংলার মাটি। তবে বৃষ্টি মানে যে শীত এবারের মত উধাও হবে তা নয়। ঠান্ডা তারপরও বজায় থাকছে জাঁকিয়েই।

Show More

Leave a Reply

Your email address will not be published.