National

বেড়াতে এসে নদীতে স্নানে নেমে তলিয়ে গেলেন ১২ জন

৪টি পরিবার একসঙ্গে বেড়াতে বেরিয়েছিল। এই অতিমারির মধ্যে একটু বুকভরে অক্সিজেন নেওয়াটাই ছিল উদ্দেশ্য। কিন্তু বাস্তবে ঘটল অন্যকিছু। যা কখনই কাম্য ছিলনা।

করোনা অতিমারির দ্বিতীয় ঢেউ এখন কিছুটা হলেও স্তিমিত। ফলে মানুষ একটু একটু করে বাইরে বার হওয়া শুরু করেছেন। বাড়িতে আতঙ্কের দিনগুলো কাটানোর পর ৪টি পারিবারের সকলে স্থির করেছিলেন যে তাঁরা সকলে মিলে একটু ঘুরে আসবেন।

সেইমত তাঁরা সকলে বেরিয়ে পড়েন একসঙ্গে। দলে ছিলেন ১৫ জন। সকলে প্রথমে হাজির হন আগ্রা শহর দেখতে। তারপর সেখান থেকে ফৈজাবাদে হাজির হন। যা অযোধ্যা পুরসভার অংশ। পাশ দিয়ে বয়ে গেছে সরযূ নদী।

ফৈজাবাদের ‘গুপ্তার ঘাট কমপ্লেক্স’ জুড়ে রয়েছে অনেক শতাব্দী প্রাচীন ঘাট, অনেকগুলি মন্দির। যা দেখতে বহু পর্যটক হাজির হন সেখানে।

এই ৪ পরিবারের ১৫ সদস্যও এখানে বেড়াতে আসেন। তারপর সকলে মিলে নেমে পড়েন সরযূ নদীতে স্নান করতে। অনেকে পুণ্যের আশায়ও এই নদীতে স্নান করেন।

এদিকে বর্ষায় ফুঁসতে থাকা সরযূ এখন জলে টইটম্বুর। ১৫ জন একসঙ্গে স্নানে নামলেও মাত্র ৩ জনই উঠতে পারেন। বাকিরা জলের স্রোতে হারিয়ে যান। তলিয়ে যান নদীতে।

দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করে প্রশাসন। উদ্ধারে ডুবুরি নামানো হয়। তাঁরা এক এক করে ৩টি দেহ উদ্ধার করেন। এখনও বাকিদের খোঁজ চলছে।

সকলকে দ্রুত উদ্ধারের নির্দেশ দিয়েছেন উত্তরপ্রদেশর মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। স্থানীয় প্রশাসনের সব উচ্চপদস্থ আধিকারিককে ঘটনাস্থলে হাজির হওয়ারও নির্দেশ দেন তিনি।

বর্ষায় ফুঁসতে থাকা নদীতে বাকিদের খুঁজে পেতে হিমসিম খাচ্ছেন উদ্ধারকারীরা। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show More