National

নাক দিয়ে জল গড়াচ্ছিল, সামান্য উপসর্গ নিয়েই করোনায় মৃত ১ সিংহী

ভারতে সিংহদের মধ্যে করোনা আগেই দেখা গিয়েছিল। এবার দেখা যাচ্ছে তা বাড়তে শুরু করেছে। ইতিমধ্যেই ১ সিংহীর প্রাণ গেছে করোনায়।

ভারতের বিভিন্ন প্রান্তেই রয়েছে সিংহ। গির অরণ্য তো রয়েছেই। তাছাড়াও বিভিন্ন চিড়িয়াখানা থেকে শুরু করে অভয়ারণ্যে নিশ্চিন্ত বাস সিংহদের।

পরিবার নিয়ে তারা বাস করে জঙ্গলের মধ্যে। সেখানে না আছে সোশ্যাল ডিস্ট্যান্স-এর সমস্যা। না আছে ভিড়। না আছেন মানুষজন। যেখান থেকে ছড়াবে করোনা।

কেবল প্রয়োজনে সিংহদের দেখভালে কাছে আসেন গুটি কয়েক মানুষ। তাতেও করোনা থাবা বসাল সিংহকুলে। আগেই ভারতে এশিয়াটিক লায়নদের মধ্যে করোনা দেখা গিয়েছিল। এবার চেন্নাইয়ের ভান্দালুর চিড়িয়াখানার সিংহদের ওপর থাবা বসাল করোনা।

এই চিড়িয়াখানাতেই রয়েছে সাফারি পার্ক। সেখানে জঙ্গলের মধ্যেই রয়েছে সিংহদের বাস। গত বৃহস্পতিবার সন্ধেয় এই ভান্দালুর চিড়িয়াখানার সিংহী নীলার মৃত্যু হয় করোনায়।


চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে গত বুধবার নীলার নাক দিয়ে জল পড়তে দেখেন তাঁরা। এছাড়া তার আর কোনও উপসর্গ ছিলনা। তারপরেও দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। কিন্তু তাতেও নীলাকে বাঁচানো যায়নি। তার মৃত্যু হয়।

নীলার মৃত্যুর পাশাপাশি সেখানে উপস্থিত ১১টি সিংহের মধ্যে খাওয়ার প্রতি অনীহা দেখা যায়। মাঝেমধ্যে তাদের কাশিও হচ্ছিল। দ্রুত তাদের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করা হয়।

সেইসঙ্গে তাদের নাক ও মলদ্বার থেকে নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়। সেই পরীক্ষার ফল আসার পর দেখা গেছে ১১টি সিংহের মধ্যে ৯টি সিংহই করোনায় আক্রান্ত। কেবল ২ জনের রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।

চিড়িয়াখানার তরফে জানানো হয়েছে যে ৯টি সিংহের রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে তাদের কড়া পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। এছাড়া চিড়িয়াখানার যে পশু চিকিৎসক দল রয়েছে তাদের পরামর্শে ইতিমধ্যেই সিংহদের ওষুধ চালু করে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে মৃত সিংহীর নমুনাও পাঠানো হচ্ছে পরীক্ষাগারে। এটা দেখার জন্য যে তার করোনার জন্যই মৃত্যু হল নাকি তার আগে থেকেই কোনও রোগ ছিল।

তবে সিংহদের মধ্যে এভাবে করোনার প্রকোপ বৃদ্ধি রীতিমত চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে দেশের বন দফতরের জন্য। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button