National

কপাল জুড়ে বিশাল চোখ, ভগবান জ্ঞানে পুজো হচ্ছে ছাগলের

দেখলে বেশ কিছুটা সময় হতবাক হয়ে চেয়ে থাকতেই হয়। কপাল জুড়ে বিশাল চোখ। একটিই চোখ রয়েছে তার মুখে। অনেকেই এই ছাগলকে ভগবান জ্ঞানে পুজোও শুরু করেছেন।

বিজনৌর (উত্তরপ্রদেশ) : খবরটা ছড়াতেই আশপাশের যত গ্রাম ছিল সেখান থেকে কৌতূহলী মানুষের ভিড় জমতে থাকে। বাড়তে থাকে ভিড়। এমন খবর ছড়াতে সময় নেয় না। কয়েকজন তো মনে করছেন ইনি সাক্ষাৎ ভগবান শিব।

অনেকে পুজোও শুরু করে দিয়েছেন। বাকিরা এমন ছাগল চর্মচক্ষে দেখার লোভ সামলাতে না পেরে সেখানে হাজির হচ্ছেন। ফলে এক ছাগলকে ঘিরে এখন সারাদিন সরগরম থাকছে উত্তরপ্রদেশের বিজনৌর-এর মোরাহাট গ্রাম।

ছাগলটি সবে জন্মেছে। ২টি ছাগলের জন্ম দেয় মা ছাগলটি। একটি স্বাভাবিক আর পাঁচটা ছাগলের মতই দেখতে। অন্য ছাগলটি কিন্তু একদম আলাদা। এর মুখ দেখলে হতবাক হয়ে তাকিয়ে থাকতে হয়।

সবচেয়ে বড় চমক তার চোখ। চোখ একটিই রয়েছে। বিশাল আকারের। পুরো কপাল জুড়ে। চোখ একটি হলেও তার মধ্যেই রয়েছে ২টি মণি। গায়ে গায়ে থাকা ২টি মণির একটি বড় এবং ১টি ছোট। ছাগলটির মাথার কাছে অনেক লোম। মুখটা শুধু দেখালে ছাগল বলে মেনে নেওয়া মুশকিল।


এই ছাগল নিয়ে এখন মহাবিপদে পড়েছেন ছাগলের মালিক। ছাগলটি এমনিতে একেবারেই শিশু। সবে জন্মেছে। কিন্তু তাকে দেখতে যেভাবে সারাদিন মানুষের ঢল নেমে থাকছে তাতে তিনি তাঁর দৈনন্দিন স্বাভাবিক জীবন নিয়ে সমস্যায় পড়েছেন।

তবে তিনি এটাও পাশাপাশি মেনে নিচ্ছেন যে এটা ঈশ্বরের আশির্বাদ। যেমন মনে করছেন অনেকে যে এটি নিছক ছাগল নয়। এটি ঈশ্বরের রূপ। যেহেতু ছাগলের কপালে চোখ রয়েছে, ফলে তৃতীয় নয়নের তত্ত্বও তুলে ধরছেন অনেকে।

স্থানীয় পশু চিকিৎসক অবশ্য এই আজব দর্শন ছাগলটির জন্মের বিষয়ে বলতে গিয়ে জানালেন যে এমনটা হতে পারে। অস্বাভাবিক চেহারা নিয়ে কোনও কোনও সময় প্রাণি জন্মে থাকে।

তিনি এও জানিয়েছেন স্বাভাবিক চেহারা না নিয়ে জন্মানো এসব প্রাণি বেশি দিন বাঁচে না। এই ছাগলের বেশিদিন বাঁচার আশা বড় একটা নেই বলেই মনে করছেন তিনি। — সংবাদ সংস্থার সাহায্য নিয়ে লেখা

Show Full Article
Back to top button