Kolkata

শহরে চালু হল গাড়িতে বসেই টিকা নেওয়ার সুযোগ

গাড়িতে বসেই এবার মিলবে টিকা। গাড়ি থেকে নামারও দরকার পড়বে না। দেশে এই পরিষেবা ইতিমধ্যেই চালু হয়েছে। কলকাতায় শুরু হল এদিন।

প্রথমে অনলাইনে রেজিস্ট্রেশন। ড্রাইভ ইন ভ্যাক্সিনেশনে নাম নথিভুক্ত করা। তারপর সেই রেজিস্ট্রেশনে দেওয়া হবে সময়।

তারিখ ও সময় পাওয়ার পর নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছে যেতে হবে গাড়িতে করে। বসে থাকতে হবে গাড়িতেই। পৌঁছনোর পর সেখানে প্রথমে হবে রেজিস্ট্রেশন। দেখাতে হবে নিজের আধার কার্ড। তারপর রেজিস্ট্রেশনে হয়ে গেলেই এগিয়ে যেতে হবে টিকাকরণের জন্য।

এই পুরো প্রক্রিয়ায় গাড়ি থেকে নামার কোনও ব্যাপার নেই। গাড়ির জানালা খুলে বসে বসেই সবকিছু হবে। তারপর গাড়ির কাছে আসবেন টিকাপ্রদানকারী। গাড়ির জানালার ফাঁক দিয়েই হবে টিকাকরণ।

এবার গাড়ি নিয়ে চলে যেতে হবে পার্কিং লটে। সেখানে আধ ঘণ্টার অপেক্ষা। চাইলে সেটাও নিজের গাড়িতেই করতে পারা যাবে। আধ ঘণ্টায় কোনও শারীরিক সমস্যা না হলে গাড়ি নিয়ে বেরিয়ে যাওয়া যাবে।


মুম্বই শহরে এভাবেই টিকাকরণ চালু হয়েছে অনেকদিন। সেখানে মূলত ড্রাইভ ইন ভ্যাক্সিনেশনের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে শপিং মলগুলিকে। সেখানে অনেক গাড়ি আসার জায়গাও রয়েছে। পার্কিং লটও রয়েছে। আর শপিং মল চেনাও সুবিধা।

কলকাতাতেও এমনটা কেন চালু হচ্ছে না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল। অবশেষে তা হল। শুক্রবার এই ব্যবস্থা চালু হল কলকাতা পুরসভা ও রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের যৌথ উদ্যোগে। সঙ্গে রয়েছে শহরের ২টি বেসরকারি হাসপাতালও।

এখানেও ঠিক মুম্বই মডেল অনুসরণ করা হবে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়। এদিন এই পরিষেবার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন কলকাতা পুরসভার মুখ্য প্রশাসক ফিরহাদ হাকিম।

যাঁদের নিজের গাড়ি রয়েছে তাঁদের জন্য এই পরিষেবা সুবিধাজনক বলেই মনে করছেন অনেকে। এতে কোনও ভিড়ে যেতে হচ্ছেনা। দিতে হচ্ছেনা লাইন।

লম্বা লাইনে দাঁড়ানো এড়িয়ে নিজের গাড়িতে বসেই এখন থেকে মিলবে টিকা। ফলে যাঁদের গাড়ি রয়েছে তাঁরা এভাবে টিকা গ্রহণ করতে পারবেন।

কলকাতার জন্য চালু হয়েছে এই পরিষেবা। আগামী দিনে রাজ্যের অন্য শহরেও এই সুবিধা কবে চালু হবে কি না সে প্রশ্নও উঠতে শুরু করেছে।

Show Full Article
Back to top button