Tuesday , March 19 2019
Bengali Horoscope

বছরের শুরুতেই জেনেনিন নতুন বছর কেমন যাবে – শিবশংকর ভারতী

পাঠক-পাঠিকাদের অবগতির জন্য বলি, এখানে যে প্রতিকার দেওয়া হল তা সারা জীবনের জন্য নয়। সাময়িক অস্বস্তিকর সময়ের হাত থেকে খানিকটা স্বস্তি পেতে। যখন সময়টা ধীরে ধীরে শুভ হয়ে উঠবে, তখন প্রতিকার না করলেও চলবে। করলে কল্যাণ কিছু হবে, না করলে ক্ষতি কিছু হবে না। প্রতিকারটা জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর – এক বছরের জন্য করতে পারেন।

প্রতিকারগুলো নিষ্ঠার সঙ্গে করলে ফল অবধারিত। অশ্রদ্ধা, অবিশ্বাস ও অভক্তিতে করলেও ফলের মার নেই। তবে ফল তাড়াতাড়ি না দেরিতে, তা নির্ভর করে ব্যক্তিগত জন্মকালীন সার্বিক গ্রহাবস্থানের উপর, যা বিশদ আলোচনা সাপেক্ষ।

Bengali Horoscope Aries

মেষ রাশি

আত্মপোলব্ধি এক অদম্য শক্তিতে ভরপুর এ রাশি। মেষ রাশির অধিপতি সেনাপতি মঙ্গল। ক্ষাত্রশক্তি থেকে উদ্ভূত ক্ষমতা এই রাশিতে বর্তমান। তাই পুরুষোচিত বীর ধর্মের বিকাশের ফলে মেষ রাশির জাতক জাতিকাদের জীবনযুদ্ধে পরাজিত হয়ে ফিরে আসার হীন প্রবৃত্তি নেই। তবে ক্ষেত্রবিশেষে নির্মম নিয়তির অমোঘ হাতছানিকেও অস্বীকার করতে পারে না।

 

মানুষের চরিত্রে তমো ও রজোগুণের প্রাবল্য বেশি, সত্ত্বগুণকে যতই আশ্রয় করুক না কেন। তাই মেষ রাশির মন যত উদার উন্নত হোক না কেন, এ প্রকাশ বাহ্যিক, একেবারে অন্তরের নয়, আন্তরিক নয়। স্বার্থে এতটুকু আঘাত লাগলে স্বভাবে এরা ভয়ংকর হয়ে ওঠে। চট করে এরা ধরা পড়ে না, বেশ কিছুদিন মেলামেশা করলে কথাবার্তা আনন্দ উল্লাসের মধ্যে দিয়ে এই রাশির জাতক জাতিকাদের প্রকৃত চরিত্র ধরা পড়ে। তখন বুঝতে পেরে সরেও পড়ে পরিচিতের কাছ থেকে। প্রথম অবস্থায় স্বাস্থ্যের প্রতি যত্নশীল। যৌবনে আনন্দে উল্লসিত মন পরবর্তী সময়ে নানান শুভাশুভ কাজের মধ্যে দিয়ে বরণ করে নেয় জীবন সংগ্রামের বলিষ্ঠ পথকে।

কর্ম জীবনের উন্নতি ও শুভ কাজে বাধা থাকবে তবে তা সত্ত্বেও কমবেশি কিছু উন্নতিমূলক পরিবর্তন হবে বিশেষ করে পেশা বা ব্যবসায় যারা আছেন। খুব নয় তবে সামান্য ঝুঁকি নিয়ে কিছু অর্থ বিনিয়োগ করতে পারেন। চাকরিজীবীদের সময়টা কর্মক্ষেত্রের পক্ষে সুন্দর ও সুখকর নয়।

আর্থিক বিষয়ে চাপ একটা থাকবে তা সত্ত্বেও কমবেশি অর্থাগম হবে। এটা ব্যবসায়ীদের ক্ষেত্রে। পেশায় যারা আছেন তাদের অর্থাগম হবে সাধারণ নিয়মে। তবে এ বছর নতুন কোনও যোগাযোগে অতিরিক্ত কিছু অর্থাগম হবে।

সাধারণ স্বাস্থ্য সারা বছর মাঝে মধ্যে বিব্রত করবে তবে বড় উদ্বেগসূচক কোনও রোগ ভোগের তেমন যোগ দেখা যায় না। মোটের উপর স্বাস্থ্য সচল থাকবে।

এ বছর সার্বিক চাপ বাধা আর অস্থিরতা প্রায়ই বড্ড বিব্রত করবে তবে এসব সত্ত্বেও কোনও শুভ যোগাযোগে উৎসাহিত হবেন। পারিবারিক জীবনে হঠাৎ কোনও বড় সমস্যায় বেশ বিচলিত হতে পারেন এবং যথেষ্ট অর্থ নষ্ট বা ব্যয়ের সম্ভাবনা প্রবল। গৃহাদি নির্মাণে, ক্রয় বিক্রয় কিংবা গৃহাদির সংক্রান্ত বিষয়ে কোনও সমস্যা বা ঝামেলায় বেশ বিব্রত হওয়ার যোগ।

বিবাহিত জীবনে মন ও মতের মিল তো এমনিতেই কম। এখন এই সমস্যা আরও খানিকটা বাড়বে। সম্ভাব্য ক্ষেত্রে তৃতীয় পুরুষ বা মহিলার আগমন সম্ভাবনা প্রবল। মোটের উপর বিবাহিতদের এ বছরটা কাটবে একটা না একটা নতুন তৈরি করা অশান্তির মধ্যে দিয়ে।

প্রেমপ্রীতির ক্ষেত্রে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে পুরুষদের ক্ষেত্রে বিবাহিতা কিংবা বয়স্কা মহিলা, মহিলাদের ক্ষেত্রে বয়স্ক কিংবা বিবাহিত পুরুষের আগমন সম্ভাবনা প্রবল।

ধর্মভাব শুভ। হঠাৎ হঠাৎ ভ্রমণ হবে। অধিকাংশ ক্ষেত্রে দেবালয় ভ্রমণ। অদীক্ষিতদের অনেকের দীক্ষালাভের যোগ আসবে এবং অনেকের হবে।

প্রতিষ্ঠা জীবনে শত্রু বাড়বে তবে ক্ষতির ভয় নেই। এ বছর আত্মীয়রা তেমন উপকারে আসবে না। অনাত্মীয়দের সহায়তা লাভ হবে বহুবার, বিশেষ করে বয়স্কদের।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

হনুমানজি অথবা দক্ষিণাকালীর (কালীঘাটের কালী হলেও হবে) যে কোনও ফটো সংগ্রহ করে যে কোনও দিন ঠাকুরের সিংহাসনে রাখুন। প্রতিদিন স্নানের পর দুটো ধূপকাঠি দিয়ে আরতি করে তিনটে জবা দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। সারা বছরের অনেক অশান্তি, দুর্ভোগ কেটে যাবে। কোনও নিয়ম নেই। জল মিষ্টি দিতে পারলে ভালো, না দিলে ক্ষতি নেই।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

সারা বছর ভালো থাকতে যতটা সম্ভব হালকা লাল, গোলাপি, হালকা নীল বা আকাশী রঙের পোশাক ব্যবহার করতে পারেন। সাদাও চলবে। যে ঘর বেশি ব্যবহার করেন সে ঘরের বা বাড়ির রং উক্ত রঙের যে কোনও একটা করলে দেহ, মন সার্বিক ভালোই হবে।

Bengali Horoscope Taurus

বৃষ রাশি

অষ্টাদশ সিদ্ধির নায়ক ধারক ও বাহক সর্বশাস্ত্র প্রবক্তা শুক্রাচার্য। শুধু ত্যাগেই ধর্ম হয় না, ভোগের মধ্যে দিয়েই চলে ত্যাগের সন্ধান। কামনা বাসনা পরিত্যাগ করে কখনও বৈরাগ্যের ভিত্তি স্থাপিত হয় না। ভোগবাদী হলেও সত্ত্বগুণাশ্রয়ী শুক্র এ সত্য বুঝেছিলেন। রজোগুণে ভরা শুক্রের প্রভাবাশ্রিত রাশি বৃষ। কর্মযোগী শুক্র। কর্মের ভিতর দিয়ে এ রাশির জাতক জাতিকার চলে আত্মপ্রতিষ্ঠার চেষ্টা।

 

শুক্রের প্রভাব থাকায় বৃষরাশির জাতক জাতিকাদের মন উদার উন্নত হয়। দুঃখ দুর্দশাকে লাঘব করে অন্তরে নির্মল আনন্দলাভের প্রচেষ্টাই চলে অহরহ। সাহিত্যে শিল্পে শাস্ত্রানুশীলনে শুভ শুক্রের প্রভাব থাকে বৃষ রাশির জাতক জাতিকাদের মধ্যে। জীবন সংগ্রামে এদের পরাজয় খুব কমই ঘটে।

কর্মজীবনে মনের স্বস্তির অভাব থাকবে। সারা বছর কমবেশি একটা বাধা অস্থিরতা প্রায়ই বড্ড বিব্রত করে রাখবে। বিশ্বাস করে ব্যবসায় অর্থ বিনিয়োগ করলে ক্ষতির ভয়টা থাকবে বেশি। পেশা বা চাকরিতে যারা আছেন তাদের সময়টা একেবারেই গতানুগতিক ধারায় চলবে।

ব্যবসায়ীদের অর্থাগমটা সুন্দরভাবে হবে না। মাঝে মাঝে বেশ ভালো আবার কখনও চলবে বেশ চাপের মধ্যে দিয়ে। মোটের উপর আর্থিক চাপ একটা থাকবে তবে কোনও ভাবে কোনও কাজটা আটকাবে না অর্থের জন্য।

স্বাস্থ্যের কারণে বেশ কিছু অর্থ ব্যয় হবে। মাঝে মধ্যেই স্বাস্থ্য বিব্রত করবে। হার্টের রুগীদের পক্ষে সময়টা কিন্তু উদ্বেগসূচক।

অপ্রত্যাশিতভাবে যথেষ্ট অর্থব্যয় বা নষ্ট হবে। এমন কোনও সংবাদ বা যোগাযোগ আসবে না যাতে আপনার আনন্দ বাড়ে। সংসার জীবন এ বছরটা কাটবে শান্তি ও অশান্তির মধ্যে দিয়ে। আত্মীয় ও বন্ধুরা তেমন উপকারে আসবে না। কোথাও বেড়াতে যাওয়ার পরিকল্পনা করেও পরে তা বাতিল হওয়ার সম্ভাবনা। পুরনো কোনও আত্মীয় কিংবা বন্ধুর সঙ্গে সম্পর্ক নষ্ট হতে পারে। উটকো ঝামেলায় অর্থ ও মনের শান্তি নষ্ট হবে। শত্রু দ্বারা ক্ষতির ভয় নেই।

দীক্ষিতদের সাধন ভজনে মন বসবে না। ব্যাপারটা ঘটবে একেবারে দায়সারা গোছের। অদীক্ষিতদের দীক্ষার তোড়জোড় করে শেষ মেষ না হওয়ার সম্ভাবনা। এ বছর বার কয়েক নিকট ভ্রমণ ও দেবালয় গমনের যোগ।

কোনও ঝুঁকিপূর্ণ কাজ ও কাউকে আর্থিক সাহায্য দিয়ে উপকার করলে সে অর্থ ফেরত পাওয়া নিয়ে দুর্ভোগ হবে। সুতরাং না দেওয়াই ভালো।

বিদ্যার্থীদের পক্ষে সময়টা শুভ নয়। মন সংযোগের বড্ড অভাব হবে। যত্নের সঙ্গে শিক্ষা চালানো কর্তব্য। এ বছর আত্মীয় ও বন্ধুরা তেমন কাজে আসবে না। মাঝে মাঝে কাছাকাছি কোথাও না কোথাও বেড়াতে যাবেন। দূরপাল্লায় ভ্রমণে বাধা জন্মাবে। শত্রু দ্বারা ক্ষতির ভয় নেই।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

হাতটা আশীর্বাদী মুদ্রায় আছে এমন একটা শিবের ফটো সংগ্রহ করুন। প্রতিদিন আকন্দ ফুল চরণে দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। আকন্দ না পেলে যে কোনও সাদা ফুল দিতে পারেন। জল মিষ্টি দিতে পারলে ভালো, না দিলে ক্ষতি নেই। কাজটা স্নানের পরেই করতে হবে।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

বছরভর সাদা, একেবারে উজ্জ্বল হাল্কা আকাশী পোশাক চলবে। বিশেষ করে সাদা রঙ দেহ মন সংসার প্রতিষ্ঠা ও যে কোনও শুভ কর্মের ক্ষেত্রে শুভপ্রদ। প্রচেষ্টায় সাফল্য ও মানসিক আনন্দ বাড়বে। বাড়ি ঘরের রং সাদা রাখলে একই ফল হবে।

Bengali Horoscope Gemini

মিথুন রাশি

এই রাশির জাতক জাতিকারা তমোগুণাশ্রিত। মন এদের উদার, উন্নত নয়। জীবনে একদিকে যৌবনচিত কর্মচাঞ্চল্য, অন্যদিকে তেমন অপরিণত বুদ্ধির বিকাশ। এই রাশির স্বপ্নসৌধ প্রায়ই ভেঙে চুরমার হয়ে যায় নিদারুণ নির্মম বাস্তবতার আঘাতে।

দূরঅভিসন্ধিমূলক কাজে বেশি আনন্দ পায়। ব্যবসা সংক্রান্ত বুদ্ধি এদের প্রশংসনীয়। মৌলিক জ্ঞানের চেয়ে পাণ্ডিত্য বেশি। তর্কে পেরে ওঠা কঠিন। মিথ্যা কথায় মেষ রাশির মত পটু। স্বভাব চঞ্চল বলে একাধিকবার প্রেমে পড়ে। কোনও প্রেমই দীর্ঘস্থায়ী রাখতে পারে না।

 

মিথুন রাশির জাতক জাতিকাদের কথার সঙ্গে কাজের সঙ্গতি প্রায়ই পাওয়া যায় না। এরা বিশ্বাস করে ঠকে। অন্যের কথায় প্রভাবিত হয়। এদের যেকোনও ভাবে পরিচিতি বেশি।

কর্ম ও অর্থভাগ্যে কমবেশি উন্নতি ও যোগাযোগ বাড়বে পেশা বা ব্যবসায় নিযুক্তদের। কর্মক্ষেত্রে কোনও উটকো লোকের অপ্রত্যাশিত সহায়তা লাভ হবে। যারা পেশায় আছেন তাদের কিছু না কিছু নতুন যোগাযোগ উৎসাহিত করবে। চাকরিজীবীদের এ বছর তেমন আশাপ্রদ কোনও যোগাযোগের আশা নেই।

কোনও ব্যক্তির সহায়তায় অর্থাগমে পথ অনেকটাই সুগম হবে। গত বছরের তুলনায় এ বছর কমবেশি আর্থিক উন্নতি হবে। অর্থাগমে কারও অপ্রত্যাশিত সহায়তা লাভ হবে। পেশায় যারা আছেন তাদের আর্থিক যোগাযোগ খানিক বাড়বে।

স্বাস্থ্য সারা বছর মোটামুটি সুস্থ থাকবে তবে যারা দীর্ঘদিন ধরে ভুগছেন তাদের কষ্টের সামান্য উপশম হবে। এছাড়া তেমন বড় কোনও স্বাস্থ্যের গোলযোগের কিছু দেখা যাচ্ছে না।

কোনও উৎসাহিত হওয়ার মতো সারা বছর বেশ কয়েকবার খবর পাবেন। আতিথ্য রক্ষা করতে গিয়ে খরচও বেশ বাড়বে। একাধিকবার কোথাও না কোথাও নিমন্ত্রিত হবেন। দূরপাল্লায় কোথাও ভ্রমণ হবে তবে তার মধ্যে দেবস্থান থাকবে বেশি।

বিদ্যার্থীদের পক্ষে বছরটা আগের তুলনায় অনেকটাই ভালো। কোনও অপ্রত্যাশিত সুযোগ আনন্দ দেবে। কোনও নষ্ট হওয়া সম্পর্ক আবার নতুন রূপ নিতে পারে। শত্রুতা করে কেউ ক্ষতি সাধনে সমর্থ হবে না। সারা বছর বাড়িতে একাধিকবার শুভ কর্মানুষ্ঠান হবে। কোনও বয়স্ক ব্যক্তির সহায়তালাভ হবে। আত্মীয় প্রীতিতে বাধা জন্মাবে।

ধর্মভাব শুভ। ধর্মীয় জীবনে উন্নতি, অদীক্ষিতদের অনেকের দীক্ষালাভ হবে। প্রতিষ্ঠা জীবনে শত্রুতা করে কেউই ক্ষতি সাধনে সমর্থ হবে না। অপ্রত্যাশিত কিছু অর্থ নষ্টের যোগ আছে তবে অন্য কোনও সূত্রে তা পূরণও হয়ে যাবে।

কি করলে ভালো থাকবেন :

প্রতি শনি ও মঙ্গলবার যেকোনও প্রতিষ্ঠিত কালী মন্দিরে, আকারে ছোট বা বড় তাতে কিছু আসে যায় না, কলা বাদে একটা নিখুঁত ফল আর যা মন চায় দক্ষিণা দিয়ে পুজো দিতে থাকুন। দারুণভাবে দুর্ভোগ কাটবে সারা বছরের। যতটা সম্ভব কালো, খয়েরি বা গাঢ় রঙের পোশাক ব্যবহার না করাই ভালো।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

হালকা আকাশী, হালকা সবুজ ও হালকা লাল পোশাক এই রাশির পক্ষে লাভদায়ক। সারাদিন, প্রতিদিন ব্যবহার করলে বছরের অধিকাংশ দিনই কাটবে মানসিক স্বাচ্ছন্দ্যে। অধিকাংশ কাজে আসবে সাফল্য। স্বভাবসুলভ মনের অস্থিরতা কমবে।

Bengali Horoscope Cancer

কর্কট রাশি

একদিকে দুঃখ শোক গ্লানি অহংকার যেমন, তেমনই অন্যদিকে সুখশান্তি আনন্দ ত্যাগ বৈরাগ্য। কর্কট সম রাশি বলে সংসারে সুখ দুঃখ শোককে এই রাশির জাতক জাতিকারা অস্বীকার করে না,সাদরে গ্রহণ করে।

 

এদের মধ্যে একদিকে রয়েছে স্নেহ উদারতা,অন্যদিকে রয়েছে নির্দয়তা। মঙ্গলের রজোগুণ ও শনির তমোগুণের সংমিশ্রণে এদের ক্রোধ কখনও কখনও প্রবল হয়ে ওঠে। অহংকার ও দম্ভের প্রকাশ যোগ্যতার চাইতে বেশি।স্ত্রীর কাছ থেকে মন মতো ব্যবহার না পেলে প্রায়ই অন্য রমণীর আশ্রয় খুঁজে নিতে চেষ্টা করে। এদের নেতৃত্ব দেবার ইচ্ছা থাকে জীবনের প্রথমাবস্থা থেকে। শনির তমোগুণের প্রভাবে জীবনে দুঃখবাদের ভারী বোঝাটাই বয়ে নিয়ে বেড়াতে হয় বেশি।

কর্মক্ষেত্রের উন্নতি ও শুভ যোগাযোগের ক্ষেত্রে সারা বছর বাধা কিছু থাকবে তবে তা সত্ত্বেও কর্মক্ষেত্রের কিছু না কিছু উন্নতি হবে ব্যবসায়ীদের মাঝে মাঝে যোগাযোগ বেশ বাড়বে আবার ভাঁটাও বেশ বিব্রত করবে। তবে গত বছরের তুলনায় এ বছরটা কর্মক্ষেত্রের পক্ষে অনেকটা শুভ হয়ে উঠবে।

আর্থিক যোগাযোগ অনেকটাই বাড়বে গত বছরের তুলনায়। কোনও ব্যক্তির মাধ্যমে অর্থাগমের সুযোগটা আসবে বিশেষ করে ব্যবসায়ী ও পেশায় যুক্তদের একাধিক উপায়ে অর্থাগমের যোগ এবং সেটা অপ্রত্যাশিতভাবে।

স্বাস্থ্যের কারণে মনটা বিব্রত করবে। বছরের অধিকাংশ সময় স্বাস্থ্য ম্যাজম্যাজ করবে। হার্টের রোগীদের পক্ষে সময়টা স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে অশুভসূচক।

একটা অদ্ভুত ধরণের অস্থিরতায় প্রায়ই বড্ড ভুগবেন। পারিবারিক জীবনে প্রায়ই মানসিক ও সাংসারিক অশান্তিতে মন বেশ বিক্ষিপ্ত হয়ে থাকবে। বিদ্যার্থীদের মানসিক অস্থিরতার কারণে শিক্ষায় আশা আশানুরূপ উন্নতি ও সাফল্যে বাধা জন্মাবে। বিবাহিতদের সারা বছর একটা না একটা লেগে থাকবে।

নিজ কিংবা কোনও নিকট আত্মীয়ের গৃহে এ বছর একাধিকবার মাঙ্গলিক কর্মানুষ্ঠান হবে। অতিথির আগমনে বাড়ি বছরের অধিকাংশ সময় হয়ে থাকবে আমোদিত। যথেষ্ট অর্থব্যয় হবে।

প্রতিষ্ঠা জীবনে শত্রুতা করে কেউ ক্ষতিসাধনে সমর্থ হবে না। ধর্মভাব শুভ। ভ্রমণযোগ মধ্যম হবে। সন্তানদের উন্নতি হবে বাধার মধ্যে। মাতৃস্থানীয়া কারও স্বাস্থ্য উদ্বেগ বাড়াতে পারে। সঞ্চিত অর্থে হাত পড়তে পারে। আত্মীয় শত্রুর বাজার মন্দা যাবে।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

মা দুর্গার একটা ফটো বাড়িতে থাকলে ভালো, না থাকলে সংগ্রহ করুন। প্রতিদিন স্নানের পর দুটো ধূপকাঠি দিয়ে আরতি করে তিনটে জবা দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। উপোষের প্রয়োজন নেই। জল মিষ্টি দিতে পারলে ভালো।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

কালো, খয়েরি এবং যে কোনও গাঢ় রঙের পোশাক একেবারে বর্জন করলে ভালো হয়। অন্য কোনও হালকা রঙের পোশাক চলবে। সবচেয়ে ভালো হয় সাদা আর খুব হালকা হলুদ পরলে। মিষ্টি আকাশীও পরতে পারেন। এগুলি সব সাফল্য ও আনন্দের এই রাশির পক্ষে। বাড়ির রঙের যে কোনওটা করা যেতে পারে অসুবিধা না থাকলে।

Bengali Horoscope Leo

সিংহ রাশি

রবির প্রভাবাশ্রিত উদ্ভাবনী শক্তির ধারক ও বাহক সিংহ রাশি। মানসিক শক্তির উৎসদাতা সিংহ রাশির জাতক জাতিকাদের মধ্যে থাকে বলিষ্ঠ গাম্ভীর্য। এরা জীবন পথে এগিয়ে চলে বাধাবন্ধহারা গতিতে। এদের মধ্যে রয়েছে দয়ামায়া, অনাশ্রিতকে আশ্রয়দান করার ক্ষমতা।এরা সব সময়েই কৃতজ্ঞ। দোষ স্বীকার করলে ক্ষমা করাই এদের জীবনের দস্তুর। ভোগের মধ্যে দিয়েই এদের ভগবানকে ডাকা। সব ছেড়ে তাঁকে চাই, এমন ভাবনা এ রাশির জাতক জাতিকারা স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারে না। ভোগবাসনা চরিতার্থ না হলে এদের মানসিকতা নিম্নাভিমুখী হয়ে পড়ে। সন্তানভাবনা অতিমাত্রায়। রাগ ও স্পষ্টবাদিতার কারণে আত্মীয় ও বন্ধুর সংখ্যা খুবই কম। যে কোনও পরিবেশে প্রথম অবস্থায় নয়, পরে নিজেকে জাহির করার চেষ্টা। বিবাহিত জীবনে তমোগুণী শনির প্রভাবে এ রাশির জাতক জাতিকারা শতকরা একজনও শান্তি পেয়েছে কিনা সন্দেহ। সিংহ রাশির ডিভোর্সের সংখ্যা অন্য রাশির তুলনায় বেশি।

 

কর্মজীবনে ব্যবসার ক্ষেত্রে বছরটা খুব ভাল নয় আবার পড়ে মার খাওয়ার মতো নয়। তবে কর্মক্ষেত্রে সার্বিক চাপ বাধা আর অস্থিরতা একটা থাকবে। স্বাধীন পেশা বা চাকরি ক্ষেত্রে যারা আছেন তাদের সময়টা কাটবে গতানুগতিক ধারায়। মোটের উপর কর্মক্ষেত্রে সময়টা কাটবে বড্ড চাপের মধ্যে দিয়ে।

আর্থিক ব্যাপারে মানসিক চাপ আর অশান্তি একটা থেকে যাবে। প্রত্যাশিত অর্থাগমে বাধা হবে। আর্থিক যোগাযোগ ও কথাবার্তা হয়ে শেষ পর্যন্ত তা ভেস্তে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। মাত্রাতিরিক্ত ব্যয় চাপে অস্থির হয়ে উঠতে পারেন।

দেহ ও মন সারা বছর কম বেশি বিব্রত করবে। স্বাস্থ্যটা ভালো যাবে না। একটা না একটা লেগে থাকবে। বড় কোন ভয় নেই তবে স্বাস্থ্য স্বস্তিও দেবে না নিকট কোনও আত্মীয়দের স্বাস্থ্য তাৎক্ষনিকভাবে উদ্বেগ বাড়তে পারে।

বিদ্যার্থীদের পক্ষে সময়টা অনুকূলে নয়। প্রতিষ্ঠা ক্ষেত্রে শত্রুকে জয় করবে। কোনও আত্মীয়দের মানসিক শান্তি বিঘ্নিত হবে। কোনও অনাত্মীয়ের সহায়তালাভ হবে।

ধর্মভাব শুভ। সদগুরুর আশ্রিত হওয়ার যোগ। এ বছর মাঝে মাঝে কাছাকাছি কোথাও না কোথাও বেড়াতে যাবেন। উটকো ঝামেলা আর ব্যয় বাড়বে অসম্ভব। আত্মীয় প্রীতিতে বাধা।

এ বছর বহু আত্মীয় ও অনাত্মীয়ের বাড়ি নিমন্ত্রিত হবেন। আনন্দিত হবেন তবে যথেষ্ট অর্থ ব্যয়ও হবে নিমন্ত্রণ রক্ষার্থে। শত্রু ভয় নেই। বছরের শেষটা বেশ ভালোই কাটবে।

মাঝে মাঝেই কোনও উৎসাহবর্ধক সংবাদ মনকে আনন্দিত করবে। বাড়িতে কয়েকবার শুভ কর্মানুষ্ঠানের যোগ। নতুন কোনও পরিচয়ে উপকৃত না হলেও আনন্দিত হবেন। কোনও মাঙ্গলিক কর্মে অর্থদান করে একটা আত্মতৃপ্তি বোধ করতে পারেন। কোনও পরিচিত বা অপরিচিত ব্যক্তি আপনার মাধ্যমে কোনও ভাবে উপকৃত হবেন।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

নৃসিংহনাথের ফটো থাকলে ভালো, নইলে দক্ষিণেশ্বরের বা কালীঘাটে পাবেন। কিনবেন যে কোনও দিন, ঠাকুরের সিংহাসনে রাখবেন যে কোনও বৃহস্পতিবার। যেদিন রাখবেন সেদিন থেকে প্রতিদিন স্নানের পর দুটো ধূপকাঠি দিয়ে আরতি করে স্পর্শ প্রণাম করবেন তিনবার। তারপর বোঁটাসমেত একটা তুলসী নৃসিংহনাথের চরণে স্পর্শ করে খেতে পারেন, রেখেও দিতে পারেন। এতে সারা বছরের অনেক দুর্ভোগ কাটবে। উপোষের প্রয়োজন নেই। একটু জল মিষ্টি দিতে পারেন।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

লাল, গোলাপি, হলুদ, বাসন্তী রঙের পোশাক এই রাশির জন্য শুভ। শুভ প্রচেষ্টায় সাফল্য ও দেহমনের আনন্দদায়ক হবে। বাড়ি বা ঘরের জন্য এর যে কোনও একটা রং ব্যবহার করতে পারেন।

Bengali Horoscope Virgo

কন্যা রাশি

এই রাশির অধিপতি গ্রহ বুধ।ভাবাবেগের রাশি। উক্ত রাশির জাতক জাতিকাদের মুখশ্রীতে প্রতিফলিত রয়েছে সৌম্যভাব। স্মৃতিশক্তির প্রখরতায় এরা অনেক বিষয়ই কণ্ঠস্থ করতে সমর্থ হয়। এদের চরিত্রের মধ্যে নির্মল নির্লোভ কমনীয়তা থাকে তাই খুব সহজেই শত্রুকে বশীভূত করতে সক্ষম হয়।

 

এই রাশির প্রেমাবেদন থাকে অতিমাত্রায়। বিপরীত লিঙ্গকে দ্রুত আকর্ষণ করতে পারে। বিবাহ প্রায়ই অসবর্ণ পরিচিতের মধ্যে হয়ে থাকে। সরলতার মধ্যে রয়েছে আত্মবিশ্বাস ও মানসিক সংযম। নিজ প্রচেষ্টা এবং অন্যের সহায়তা এ দুইয়ের মিলনে আসে প্রতিষ্ঠা। স্বভাবে বুধ তমোধর্মী তাই এ রাশি বৈরাগ্যকে আশ্রয় করে এগিয়ে চলতে চায় না। ভালোবেসে বিয়ে করলেও স্বামী ও স্ত্রী প্রায়ই মনোমতো হয় না। সংগীত সাহিত্য শিল্পের প্রতি আকর্ষণ যেন সহজাত।

এ বছর ভ্রাতৃস্থানীয় কারও মধ্যে কর্মক্ষেত্রে কমবেশি উন্নতি বা সুযোগ আসবে। অপ্রত্যাশিত যোগাযোগে কর্মক্ষেত্রের কিছু উন্নতি হবে। কোনও নতুন যোগাযোগ উৎসাহিত করবে। কোনও ঝুঁকির কাজে না গিয়ে সাধারণভাবে যেমন চলছে – তেমন ভাবে চলাই ভালো।

আয় ব্যয়ের মাত্রা প্রায় সমান থাকবে। মাঝে মাঝে বেশ ভালো আবার কখনও আর্থিক চাপ অস্বস্তি থাকবে অতিমাত্রায়। তবে অবস্থা যাই হোক না কেন, সারা বছর কাটবে সচ্ছলতায়। অর্থের অভাবটা হবে না।

স্বাস্থ্যের পক্ষে বছরটা অস্বস্তিকর। আঘাত ও কাটছেঁড়া, চোখ ও পেটটা প্রায়ই বড্ড বিব্রত করবে। স্বাস্থ্যের কারণে কিছু অর্থ নষ্টের যোগ। চাণক্যের কথায়, রোগ আর ঋণ পুষে রাখলে বাড়ে ছাড়া কমে না। যখন শরীর নিয়ে যে কষ্টই হোক না কেন, সঙ্গে সঙ্গে তা আরোগ্য লাভের চেষ্টা করা কর্তব্য।

এ বছর আর্থিক চাপ একটা থাকবে তবু তা কাটিয়ে উঠবেন। অধিকাংশ দিনগুলো কাটবে আনন্দের মধ্যে দিয়ে। বাড়িতে একাধিকবার কর্মানুষ্ঠান যেমন বিবাহ পৈতে অন্নপ্রাশন বা গৃহপ্রবেশ ইত্যাদি কোনও না কোনও মাঙ্গলিক কর্মানুষ্ঠান হবে। অপ্রত্যাশিত কিছু অর্থাগমযোগ। কোথাও না কোথাও বেড়াতে যাবে না। কোনও আত্মীয়ের কারণে অর্থব্যয় হবে। বিদ্যার্থীদের বিদ্যায় আশানুরূপ ফললাভে বাধা জন্মাবে। বিদ্যায় মনঃসংযোগের অভাব থাকবে অতিমাত্রায়।

প্রতিষ্ঠা জীবনে অকারণ শত্রুতার সম্মুখীন হতে পারেন তবে প্রকাশ্যে ও গুপ্তভাবে কেউই ক্ষতি সাধনে সমর্থ হবে না। যাদের দীক্ষা হয়নি, তাদের অনেকেরই সদগুরুর আশ্রয়লাভ হবে। আত্মীয়রা তেমন কাজে আসেনি কখনও, এ বছরও আসবে না। অনাত্মীয়দের সহায়তা লাভটা বরাবর কমবেশি হয়ে আসবে। ইচ্ছা বা অনিচ্ছায় সারা বছর বেশ কয়েকবার দেবালয় ভ্রমণ হবে সেটা কাছের কিংবা দূরের কোথাও।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

মহালক্ষ্মীর ফটো সংগ্রহ করুন। চার হাতের মধ্যে দু-হাতে পদ্ম আর এক হাতে টাকা ঝরছে। ছবিতে হাতির মাথা থাকলে চলবে না। উপোষের প্রয়োজন নেই। প্রতিদিন স্নানের পর যে কোনও পাঁচটা সাদা ফুল চরণে দিয়ে তিনবার স্পর্শপ্রণাম করুন। একটু জলমিষ্টি দিলে ভালো, না দিলে ক্ষতি কিছু হবে না। কোনও নিয়ম নেই। কাজটা চলতে থাকলে কর্মজীবন, সংসার ও প্রতিষ্ঠাজীবনে চলার পথের বাধা অস্বস্তির হাত থেকে মুক্তি পাবেন।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

কন্যা রাশির জাতক জাতিকাদের জন্য হালকা আকাশই, হালকা সবুজ, হালকা হলুদ আর সাদা পোশাক অত্যন্ত শুভদায়ক। বাড়িঘরের রঙের মধ্যে থেকে একটা পছন্দ করতে পারেন।

Bengali Horoscope Libra

তুলা রাশি

শুক্রাচার্যের আনন্দময় ধাম তুলারাশি। জাগতিক কামনাবাসনার কারক এই রাশি। প্রকাশ শক্তির বিস্তার এই রাশিতে কম। জাতক জাতিকাদের প্রকৃত মনোভাব বুঝে ওঠা দায়। যে কোনও মুহুর্তে প্রতিষ্ঠাক্ষেত্রে বারংবার বাধা আসে তবুও শুক্রের প্রভাবে দুর্দমনীয় প্রচেষ্টা নিয়ে অগ্রসর হয়, আরও সুন্দর ও ঐশ্বর্যমণ্ডিত করে তুলতে চায় জীবনকে।এই রাশিতে রজোগুণের প্রভাব বেশি থাকায় কর্মের উদ্যম নষ্ট হয় না। জীবনের প্রথমভাগে ভোগ বাসনা শিল্পপ্রিয়তা, মধ্যভাগে ত্যাগের মধ্যে দিয়ে জীবন পরিচালনা, শেষ ভাগে ত্যাগের খ্যাতি ছড়িয়ে পড়ে। এদের জীবনে কর্ম প্রায় ক্ষেত্রেই অসম্পূর্ণ থাকে। এই রাশির জাতক জাতিকারা প্রশংসা ও স্তুতিপ্রিয়। সহজে অন্যের কথায় বিশ্বাসী হয়ে পরে প্রতারিত হয় মানসিক ও আর্থিক ভাবে।

 

কর্মজীবনে এ বছর ব্যবসায় ক্ষেত্রে অনেকটাই উন্নতি হবে অপ্রত্যাশিত যোগাযোগ বাড়বে কর্মক্ষেত্রে। নতুন কোনও যোগাযোগে উৎসাহিত হবেন। পেশায় যারা আছেন তাদের কর্মজীবনে সম্মানের সঙ্গে অর্থাগমের সুযোগ বাড়বে। চাকরিজীবীদের ছোট্ট কোনও সুযোগ খুশি করতে পারে।

এ বছর নতুন নতুন আর্থিক যোগাযোগে যথেষ্ট উৎসাহিত হবেন। আর্থিক উন্নতি তো হবেই। পুরনো আটকে থাকা টাকা খানিকটা হলেও ছাড় পাবে। গত বছরের তুলনায় অর্থাগমের মাত্রা খানিকটা বাড়বে। অতিরিক্ত ব্যয়ের পরিমাণ অনেকটাই কমবে। অপ্রত্যাশিত কিছু অর্থাগম হবে, যেটা ভাবেননি।

সারা বছর স্বাস্থ্যটা ভালোই যাবে। খুচখাচ সর্দি কাশি জ্বর ছাড়া বড় কোনও রোগ ভোগে পড়ার ভয় নেই তবে হার্টের রোগীদের পক্ষে স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে সময়টা অশুভ সূচক। হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

এ বছর নিজ কিংবা নিকট আত্মীয়ের গৃহে একাধিকবার শুভ কর্মানুষ্ঠান হবে। আপনি নিজেও উপস্থিত থাকবেন। সেই উপলক্ষে বেশ কিছু অর্থব্যয়ও হবে। একাধিকবার সুসংবাদ পাবেন। কর্মপ্রার্থীদের অনেকের কোনও বয়স্ক ব্যক্তির সহায়তা কর্মলাভ সম্ভাবনা প্রবল, সেটা একাধিকবার এবং একাধিক জায়গায়। এ বছর অপ্রত্যাশিতভাবে ছোট হোক বা বড় ভালো ঘটনা কিছু ঘটবে।
এ বছর সাদা বা ঘিয়ে রঙের কয়েকবার উপহার কিছু পাবেন। খুব দামি না হলেও কমদামী হবে না। বেশ কয়েকবার কোথাও না কোথাও বেড়াতে যাবেন। দেবদেবী ও মঠ মন্দিরের টান বা আকর্ষণ বেশ খানিকটা বাড়বে। ইচ্ছা অনিচ্ছায় মাঝেমধ্যে সেখানে পৌঁছে যাবেন।

কোনও উচ্চপদস্থ অথবা বয়স্ক কোনও ব্যক্তির সহায়তা লাভ হবে, সেটা অর্থ কিংবা কোনও যোগাযোগ দিয়ে। এবছর বেশ কয়েকবার কোথাও না কোথাও নিমন্ত্রিত হবেন এবং জব্বর খানাদানা হবে।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

একটা ছয় মাথা কার্তিকের ছবি সংগ্রহ করে ঠাকুরের সিংহাসনে রাখুন। প্রতিদিন স্নানের পর দুটো ধূপকাঠি দিয়ে একটু আরতির পর যে কোনও সাদা ফুল চরণে দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। সারা বছরের অনেক বাধা-বিপত্তি ও দুর্ভোগের হাত থেকে রক্ষা পাবেন। একটু জল মিষ্টি দিতে পারেন। কোনও নিয়ম পালন বা উপোষের প্রয়োজন নেই।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

হালকা লাল, গোলাপি, সাদা, উজ্জ্বল হাল্কা আকাশী পোশাক সারাবছর দেহমনকে আনন্দ আর অধিকাংশ কাজে সফলতা দেবে সম্মানের সঙ্গে। আরও ভালো হয় বাড়িঘর পাতিলেবু রং করলে।

Bengali Horoscope Scorpio

বৃশ্চিক রাশি

এই রাশির জাতক জাতিকারা চঞ্চল ও একগুঁয়ে মনোভাবের হয়। রাগ জেদ অস্থিরতা অধীর ও পরশ্রীকাতরতা দোষগুলি এ রাশিতে প্রায়ই থাকে। উদারতার প্রকাশ ও চারিত্রিক দৃঢ়তা কম। আত্মপ্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়ে থাকে। আধ্যাত্মিকতার মধ্যেও এদের ভণ্ডামি থাকে।

 

অসম্ভব সংগ্রামের মধ্যে দিয়ে প্রতিষ্ঠা আসে, তবে চন্দ্রের নিচস্থান বৃশ্চিক রাশি, তাই কিছুতেই শান্তিটা আসে না। পারলৌকিক বিষয়ে কৌতূহল সীমাহীন। এদের করা কাজ অন্যের ভালো না লাগলেও নিজের পরিতৃপ্তিই যথেষ্ট। ইচ্ছাধীন কর্মে আগ্রহী। অন্যের মত ও কথায় গুরুত্ব দিতে নারাজ।

বিবাহিত জীবনে মন ও মতের মিলের অভাব থাকে। এই রাশির জাতক জাতিকারা ব্যর্থতার মধ্যেও খুঁজে নিতে পারে আধ্যাত্মিকতা। শেষ জীবন প্রায়ই কাটে ধর্মীয় জীবনে মনোনিবেশে।

সারা বছর যে সব কাজগুলো আপনি করবেন তাতে প্রথমে বাধা কিছু হবে, পরে কাজগুলো হবে। হই হই করে হওয়াটা হবে না। একথা যারা পেশা বা ব্যবসায় যারা আছেন উভয়ের ক্ষেত্রেই সমান ভাবে প্রযোজ্য। বাধা মাইনের চাকুরিয়াদের কর্মক্ষেত্রে একটা না একটা অস্বস্তি লেগে থাকবে।

আর্থিক অবস্থার লক্ষণীয় পরিবর্তন কিছু হবে না। গতানুগতিক ধারায় চলবে অর্থ ভাগ্য। মাঝে মধ্যে আর্থিক বিষয়ে উদ্বেগ ও অস্বস্তি মনকে বেশ বিব্রত করে রাখবে তবে সে অবস্থাটাও উতরে যাবে। অপ্রত্যাশিতভাবে কিছু অর্থ নষ্টের সম্ভাবনা রয়েছে। কাউকে বিশ্বাস করে অর্থ না দেওয়াই ভালো।

স্বাস্থ্যের পক্ষে খুব বাজে সময় একটা ছিল সেটা চলে গেছে। এখন থেকে সময়টা দেহ ও মনের পক্ষে ধীরে ধীরে অনেকটাই যাবে স্বস্তির দিকে বড় কোনও রোগ ভোগ ও স্বাস্থ্যের কারণে বড় রকমের অর্থ নষ্টের কোনও কারণ নেই।

টাকা ধার দিলে কিংবা অর্থ বিনিয়োগ করলে ক্ষতির সম্ভাবনা। কোনও ঝুঁকির কাজে যাওয়া মানে অর্থ শ্রাদ্ধ হওয়া। হঠাৎ কারও সঙ্গে বাদানুবাদে জড়িয়ে পড়ে এ বছর অনেকবারই মানসিক শান্তি নষ্ট হবে। শত্রুতা করে কেউ ক্ষতি সাধনে সমর্থ হবে না। আত্মীয় ও বন্ধুদের দিক থেকে লাভ বা ক্ষতি কিছু হবে না।

বিদ্যার্থীদের বিদ্যায় আশানুরূপ উন্নতি বা অবনতি কিছু হবে না। ধর্মের প্রতি কোনও টান বা আকর্ষণ কিছু থাকবে না। দূরপাল্লায় ভ্রমণ যোগ নেই তবে কাছাকাছি টুকটাক কোথাও বেড়াতে যাবে। অদীক্ষিতদের দীক্ষার সম্ভাবনা বেশি।

বয়স্কদের স্বাস্থ্যের কারণে হঠাৎ করে এক গাদা অর্থ ব্যয়ের যোগ। নতুন কিছু আসবাব কেনার কারণে খরচ বাড়তে পারে। প্রতিষ্ঠা জীবনে শত্রু দ্বারা ক্ষতির ভয় নেই। কোনও ফালতু বন্ধুর পাল্লায় পড়ে সম্মান হানির সম্ভাবনা। মোটের উপর বছরটা কাটবে একটা না একটা অস্বস্তির মধ্য দিয়ে। বড় ক্ষতির ভয় নেই তবে স্বস্তির অভাবটা থেকে যাবে।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

হনুমানজির একটা ফটো সংগ্রহ করে সিংহাসনে রাখুন। দেখে নেবেন বাম হাতে পাহাড় আর ডানহাতে গদা থাকবে। উপোষের প্রয়োজন নেই। প্রতিদিন স্নানের পর দুটো ধূপকাঠি দিয়ে আরতি করে তিনটে জবা দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। সারা বছরের অনেক অশান্তি, দুর্ভোগ কেটে যাবে। জল মিষ্টি দিতে পারলে ভালো, না দিলে ক্ষতি নেই। মহিলা পুরুষ সকলেই করতে পারেন।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

সাংসারিক মানসিক কর্ম ও প্রতিষ্ঠা জীবনের ক্ষেত্রে হালকা লাল, হালকা হলুদ, হালকা আকাশী ও সাদা রঙের পোশাক কল্যাণকর। আকাশীটা বাদ দিয়ে বাড়ি-ঘরের ক্ষেত্রে ওই রংগুলির যে কোনওটি ব্যবহার করতে পারেন।

Bengali Horoscope Sagittarius

ধনু রাশি

এই রাশিতে দেবগুরু বৃহস্পতির ভাব তেজোধর্মী। এই রাশির জাতক জাতিকাদের মধ্যে মূর্ত হয়ে উঠেছে দ্ব্যত্মক ভাব। একইসঙ্গে রজো ও সত্ত্বগুণের সমাহার। এদের ভিতর প্রচ্ছন্ন থাকে অহংকার। অন্যায়ের প্রতিবাদ করতে এরা মুখর। এরা চট করে কাউকে বিশ্বাস করতে পারে না। সন্দেহের ভাবটা থাকে ঘরে বাইরে।

 

যোগ্যতার তুলায় এরা উপার্জন করে বেশি। এই রাশির মধ্যে দয়া মায়া সহিষ্ণুতাও অনেক বেশি। আত্ম প্রতিষ্ঠা আসে নিজ চেষ্টায়। অন্যের উপর এদের ভরসা কম। নিজের কাজ নিজেই করতে বেশি ভালোবাসে। জাতকের মধ্যে স্ত্রৈণের সংখ্যা কম। অসদুপায়ে কিছু অর্থ জীবনের কোনও না কোনও সময়ে এসে যায়। বিবাহের পরবর্তীকালে ভাগ্যের প্রকৃত বিকাশ ঘটে। বিবাহিতজীবনে স্ত্রীর সঙ্গে প্রায়ই মতের মিলের অভাব দেখা দেয়।

এ বছর কর্মজীবন থাকবে উদ্বেগ ও অস্থিরতায় ভরা। পেশা বা ব্যবসায় কোনও ঝুঁকি নিয়ে অর্থ বিনিয়োগ কিংবা ওই জাতীয় কোনও কাজ না করাই শ্রেয়। ব্যবসায় ক্ষেত্র চলবে উত্থান পতনের মধ্যে দিয়। সমস্ত কাজে বাধা একটা থেকে যাবে। অপ্রত্যাশিত অর্থ ক্ষতির সম্ভাবনা। পেশায় নিযুক্ত ও চাকুরিয়াদের বছরটা স্বস্তিতে কাটবে না।

আর্থিক বিষয়ে মানসিক উদ্বেগ ও অশান্তি একটা থেকে যাবে। প্রত্যাশিত অর্থাগমে বাধা জন্মাবে। পরিশ্রমানুসারে আর্থিক উন্নতির আশা নেই। অসম্ভব ব্যয় বাড়বে। কোনও না কোনও ভাবে অর্থ নষ্ট বা ক্ষতির সম্ভাবনা প্রবল। নতুন অর্থ বিনিয়োগের ক্ষেত্রে সময়টা অনুকূলে নয়। আর্থিক অবস্থার উল্লেখযোগ্য কোনও পরিবর্তনের আশা নেই।

বর্তমানে স্বাস্থ্যের যেমন ধীরে ধীরে খানিকটা অবনতি হবে তেমন নানান কারণে মানসিক শান্তিও বছরের অধিকাংশ সময় বিঘ্নিত হবে। উটকো ঝামেলা আর ব্যয় বাড়বে অসম্ভব। প্রত্যাশিত অর্থাগমে বড্ড বাধা থাকবে।

বছরটা কাটবে নানা অস্বস্তি আর অশান্তির মধ্যে দিয়ে। বিবাহিত জীবনে মতবিরোধজনিত অশান্তি মানসিক শান্তি মাঝে মধ্যেই বিঘ্নিত হবে। কোনও কাজটাই সুন্দরভাবে হবে না। অপ্রত্যাশিতভাবে টাকা নষ্ট হবে। তৃতীয় কোনও ব্যক্তির অনুপ্রবেশ অশান্তির মাত্রা বাড়াবে। যারা পড়াশুনা নিয়ে আছেন তাদের মানসিক অস্থিরতা বাড়বে অতিমাত্রায়।

ধর্মের প্রতি মনের কোনও আকর্ষণ থাকবে না। দীক্ষার্থীদের দীক্ষা লাভে বাধা জন্মাবে। কারও স্বাস্থ্য বা অন্য যে কোনও কারণে এ বছর ব্যয় বাড়বে জলের ধারায়। ঋণে জড়াতে পারেন। প্রথম থেকে সতর্ক থাকুন। শত্রু থাকবে তবে ক্ষতি কিছু হবে না। আর্থিক ব্যাপারে এখন বিশ্বাস করে টাকা পয়সা না দেওয়াই ভালো।

একান্ত দীক্ষা নিতে হলে গুরু নির্বাচনে সতর্কতা প্রয়োজন তা না হলে জালি গুরুর পাল্লায় পড়ে দীক্ষা নিয়ে জন্মটা তো যাবে, পরের জন্মটাও।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

বাড়িতে মা লক্ষ্মীর সঙ্গে নারায়ণের ছবি থাকলে ভালো, না থাকলে শুধু নারায়ণের ছবি সংগ্রহ করে নিন। প্রতিদিন দুটো ধূপকাঠি দিয়ে আরতি করে পরে বোঁটাসমেত একটা তুলসী নারায়ণের চরণে দিয়ে প্রণাম করুন। সঙ্গে চন্দনের কোনও প্রয়োজন নেই। এ কাজে মেয়েদের বাধা নেই। সারা বছরের অনেক দুর্গতির হাত থেকে রক্ষা পাবেন। নারায়ণ পুজোতে নিরামিষ খাওয়ার দরকার নেই।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

পোশাকের রং হলুদ, গোলাপি, হালকা লাল রাখতে চেষ্টা করুন। সারাটা বছর সবদিক দিয়ে অনেক স্বস্তিতে থাকবেন। বাড়ি ঘরের রং হলুদের উপর ভরসা করলে অর্থ সম্মান দুইই আসবে।

Bengali Horoscope Capricorn

মকর রাশি

জন্মের পর থেকে এই রাশির জাতক জাতিকারা দেখেছে চারদিকে ছড়িয়ে আছে হিংসা-দ্বেষ অহংকার ও স্বার্থের পসরা। তার মধ্যে দিয়ে দুঃখবাদের কারক মকর রাশির অধিপতি শনি মূল লক্ষ্যে পৌঁছে দেয়। এদের চরিত্রে প্রকাশ পায় কর্মে নিষ্ঠা, কঠোর পরিশ্রম, অধ্যবসায় ও একাগ্রতা। সমস্ত দুঃখ কষ্টকে জয় করার ক্ষমতা যেন আত্মশক্তির মধ্যেই নিবিড়ভাবে নিহিত আছে। বয়েস বৃদ্ধির সঙ্গে এই রাশির প্রতিষ্ঠা যশ সম্মান অর্থ ক্রমোত্তর বৃদ্ধি পেতে থাকে। এদের মন ও মত, কর্মচিন্তা ও পদ্ধতি সাধারণের তুলনায় একটু ভিন্ন ধরণের।

 

পরিশ্রম করে এরা সফল হয় তবে সাফল্য দেরিতে। বিবাহ প্রায়ই পরিচিতের মধ্যে সংঘটিত হয়। আত্মীয়রা তেমন উপকারে আসে না। সংসারী হয়, উদাসীন খুব কর্মক্ষেত্রে। বিলাসে প্রমত্তের চেয়ে এরা একেবারেই সাধারণ জীবনযাপনের পক্ষপাতী।

কর্মজীবনে ব্যবসায়ীদের বছরটা কাটবে ভালো মন্দ মিশিয়ে। কখনও শুভ যোগাযোগে উৎসাহিত আবার কখনও হতাশ হবেন। এরকম ভাবে কেটে যাবে বছরটা। এক কথায় বছরটা না খুব মিঠে না খুব কড়া। পেশায় নিযুক্তদের ক্ষেত্রে একই কথা বলা চলে। তবে উভয়ের ক্ষেত্রে শুভ যোগাযোগ মাঝে মধ্যে বেশ ভালোর দিকে নাড়া দিয়ে যাবে।

অর্থভাগ্যের কমবেশি উন্নতি হবে। আর্থিক ব্যাপারে যোগাযোগ বাড়বে। কোনও বয়স্ক ব্যক্তির সহায়তায় অর্থাগম হবে। এককালীন বেশ কিছু অর্থলাভের সম্ভাবনা। যে কোনও ভাবে অর্থ লাভের সুযোগ বৃদ্ধির যোগ। হুট করে মোটা অর্থ ব্যয়ের যোগ।

স্বাস্থ্যটা ভালো যাবে না। প্রায়ই বড্ড বিব্রত করবে। অপ্রত্যাশিতভাবে কিছু অর্থ নষ্ট বা ব্যয় হবে। মাঝে মাঝে কিছু অর্থাগম হবে কোনও কাজের কারণে তবে তা মনের মতো নয়। ব্যয় চাপ এতটুকুও কমবে না। ঝুঁকির কাজে অর্থ বিনিয়োগে বোকামি করা হবে। যেমন চলছে তেমন চলতে দিন।

যাদের দীক্ষা হয়নি তাদের অনেকের দীক্ষা লাভ হবে। কোথাও বেড়াতে যাবেন সেটা পাহাড় কিংবা দেবালয়ে। এবছর একাধিকবার ভ্রমণ হবে।

প্রতিষ্ঠা জীবনে কোনও বিশেষ সুযোগে অর্থ বা অন্য কোনও ভাবে লাভবান হবেন। কোনও উপহার বা এমন কিছু পাবেন যেটা আপনার ক্ষেত্রে বেশ কাজে আসবে। এমন কোনও সুযোগ আসবে যেটা আপনার ক্ষেত্রে অত্যন্ত ফলদায়ক।

এ বছর নিজ গৃহে এবং আত্মীয়ের গৃহে একাধিকবার শুভ কর্মানুষ্ঠান হবে। নিজ গৃহে আত্মীয় সমাগম বাড়বে। স্বাস্থ্য মাঝে মাঝে মনের আমেজ নষ্ট করব। কোনও কারণে বছরে বেশ কয়েকবার মানসিক উদ্বেগ বাড়বে যা কাজের ক্ষেত্রে মনকে বিচলিত করে রাখবে তবে সেটা তেমন মারাত্মক কিছু নয়।

দেব দেবীর উপর বিশ্বাস আছে তবে মন্দির বা দেবালয় বা আশ্রমে মাঝে মাঝে যাওয়া বা দু-চার মিনিট বসায় অরুচি আছে। এ বছর ওই অরুচিটা অন্যান্য সময়ের মতো থেকে যাবে। কোনও নিকট আত্মীয় কিংবা বন্ধুর ব্যবহার আপনার মনকে ভরিয়ে তুলবে। ঝামেলা এড়িয়ে চলুন।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

প্রতি শনিবার প্রতিষ্ঠিত শনি মন্দিরে অথবা নবগ্রহ মন্দিরে যেতে পারেন। ফুটপাথে গজিয়ে ওঠা নয়। মন্দিরে সাদা বাতাসা, সাদা ফুলের মালা দিয়ে সারাদিনে যখন খুশি পুজো দিতে পারেন। উপোষের প্রয়োজন নেই। তেল চলবে না। ঘিয়ের রান্না নিরামিষ খেতে পারেন। এক বেলা আতপ চালের ভাত, আর একবেলা নিরামিষ যা খুশি।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

সারাবছর একটু চেষ্টা করুন পোশাকের রঙটা সবুজ, আকাশী, হালকা বা একটু গাঢ় হলুদের মধ্যে রাখতে। দেহমন কর্ম ও পারিবারিক ক্ষেত্রের অস্বস্তি অনেকটাই কাটবে। অধিকাংশ শুভ প্রচেষ্টায় সাফল্য আসবে। বাড়ি ঘরের রং হলুদ রাখলে ভালো হয়।

Bengali Horoscope Aquarius

কুম্ভ রাশি

শনির আনন্দময় স্থান বলা হয়ে থাকে কুম্ভ রাশিকে। দম্ভ অহংকার পরশ্রীকাতরতা এই রাশির জাতক জাতিকাদের চরিত্র বিরুদ্ধ। এগুলির আবির্ভাব ঘটলেই বুঝতে হবে এদের জীবনপ্রবাহ এগিয়ে যাচ্ছে দুর্ভোগময় জীবনের পথে। সাংসারিক সমস্ত দুঃখকে জয় করে যেমন পরমানন্দ লাভ করে, তেমনই অফুরন্ত আনন্দভাবে ভরপুর এই রাশি। বয়স বৃদ্ধির সঙ্গেই উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পায় অধ্যাত্মচেতনা। সংগ্রামী জীবনের পূর্ণতা আসে মধ্য বয়েসের পর। এরা ঈশ্বরভক্তিপরায়ণ হয়। যৌনজীবনে সংযমের প্রয়াসী। রাশির উপর অশুভ গ্রহের প্রভাব থাকলে সম্পূর্ণ বৈপরীত্য ঘটে এদের চরিত্রে। যে কোনও নিম্নস্তরের কাজ করতে অন্তরে এতটুকুও হেলদোল নেই। গুছিয়ে সুন্দর মিথ্যা বলায় এদের যেন জুড়ি নেই।

 

এ বছর কর্মজীবনে পেশা বা ব্যবসায় মাঝে মধ্যে বেশ উৎসাহ বোধ করবেন আবার কখনও নিরুৎসাহিত হবেন। তবে কর্মক্ষেত্রের সার্বিক অবস্থা থাকবে সুন্দর ও সচল। পেশায় যারা আছেন তাদের কর্মক্ষেত্রে আগের তুলনায় যোগাযোগ বেশ খানিকটা বাড়বে। চাকুরিয়াদের মনের অস্বস্তি বাড়বে বড্ড বেশি।

যথেষ্ট অর্থাগম যেমন হবে তেমন জলের মতো অর্থ ব্যয়ও হবে। নিয়মিত আয়ের তুলনায় যে কোনও ভাবে আয় অনেকটাই বাড়বে। কোনও নতুন যোগাযোগে আর্থিক উন্নতি হবে। গত বছরের তুলনায় এ বছর আর্থিক উন্নতির পথ অনেক সুগম হবে।

স্বাস্থ্যটা প্রায়ই বড্ড ভোগাবে। দেহ ও মনের কোনও স্বস্তি থাকবে না। একটা না একটা শারীরিক অস্বস্তি দেহ ও মনকে বড্ড বিব্রত করে রাখবে। স্বাস্থ্যের কারণে বেশ কিছু অর্থ নষ্ট হবে। স্বাস্থ্য সতর্কতা প্রয়োজন।

আপনি চেষ্টা করেন সময়ের কাজ সময়ে করতে, কথা দিলে কথা রক্ষা করতে, এ বছর আপনার নিয়ম নীতির বিরুদ্ধ ভাবাপন্ন মহিলা পুরুষ জুটবে বেশি, ফলে স্বাভাবিক কারণে পুরনো ও নতুন পরিচিতদের অধিকাংশের সঙ্গেই প্রীতির সম্পর্ক কারও সঙ্গে সাময়িক, কারও সঙ্গে চিরকালীন ছিন্ন হতে পারে। এ বছর নিয়ম নীতিহীন মানুষের সান্নিধ্যে আসবেন বেশি।

বছরে বেশ কয়েকবার কাছাকাছি ও দূরপাল্লায় ভ্রমণে যাবেন তবে দেহ বা মনের কারণে এক আধবার যাওয়ায় বাধা পড়তে পারে। তবে দেবালয়ে ভ্রমণ মাঝে মধ্যেই অব্যাহত থাকবে। এবছর অনেক ধর্মকামীরই দীক্ষালাভ হবে তবে মানুষের মনকে ক্রাইম করা ক্রিমিনাল ধর্মবিরোধী গুরুকে এড়িয়ে চলুন যারা এক ঘরে বসিয়ে একাধিক ধর্মার্থীকে একসঙ্গে দীক্ষা দেয়। দীক্ষা নেওয়ার আগে বিষয়টা জেনে নিয়ে পরে দীক্ষা নেওয়া কর্তব্য।

কোনও ভালো মানুষের সঙ্গলাভে নতুন কিছু জানতে ও শিখতে পারবেন। সম্মান ও যশের ক্ষেত্র প্রসারিত হবে। আগে যাওয়া হয়নি এমন জায়গা বা দেবালয়ের পেয়ে সেখানে যেতে পারেন। এ বছর নানান ধরণের বিভিন্ন দ্রব্য ও উপহার প্রাপ্তির সংখ্যা বাড়বে যেগুলি সত্যি একটু দামি। ভাল ও বেশি দামের জিনিস দেওয়ার লোকের সংখ্যা এখন নেহাতই কম। উদাহরণে বলি, যে সব পেন ব্যবহারের অনুপযুক্ত সেই সব পেন আমি প্রতিবছর গাদাগাদা উপহার পাই।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

সম্ভব হলে মা কামাখ্যার একটা ফটো সংগ্রহ করুন। প্রতিদিন স্নানের পর তিনটে জবা দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। উপোষের প্রয়োজন। জল মিষ্টি দিতে পারলে ভালো। আরও ভালো হয় প্রতি শনিবার একটা ডাব নিবেদন করে জলটা খেলে।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

আর্থিক মানসিক সাংসারিক কর্ম ও প্রতিষ্ঠাজীবনে সুন্দরভাবে বছর কাটাতে আকাশী, সাদা, হালকা হলুদ, হালকা সবুজ রঙের পোশাক সর্বাঙ্গীণ অনেক স্বস্তি ও আনন্দ দেবে। বাড়ি ঘরের রং সাদার উপর রাখতে পারেন।

Bengali Horoscope Pisces

মীন রাশি

দেবগণের ঋষি অঙ্গিরার পুত্র দেবগুরু বৃহস্পতি। জ্ঞানযোগী বৃহস্পতির আপন ক্ষেত্র এবং কর্মযোগী ভোগবাদী দৈত্যগুরু শুক্রাচার্যের তুঙ্গক্ষেত্র মীন রাশি। তাই এই রাশির জাতক জাতিকাদের মধ্যে রয়েছে সত্যের পরিচয়, কর্তব্যনিষ্ঠা ও আদর্শবাদের বলিষ্ঠ প্রকাশ। আধ্যাত্মিক অনুভূতিকে এরা চিরন্তন করে রাখতে চায় মনের প্রতিটা স্তরে।

 

দৈত্যগুরু অন্যদিকে শিক্ষা দিয়েছেন কর্মের মধ্যে দিয়ে লাভ করতে হবে ত্যাগকে। তবে ভোগবাদকে অস্বীকার করে কিছুতেই লাভ করা যায় না ত্যাগবাদকে। চাই ভোগ, সৃষ্টি, আনন্দ, দৈহিক পরিতৃপ্তির জন্য ইন্দ্রিয়সুখ। সত্ত্ব ও রজোগুণের এই বিকাশই প্রস্ফুটিত হয়েছে মীন রাশির জাতক জাতিকার মধ্যে। ধর্ম শুধুমাত্র ত্যাগের নয়, ভোগেরও অধিকার রয়েছে পূর্ণমাত্রায়। এই রাশি জন্মকুণ্ডলীতে পাপগ্রহ দ্বারা পীড়িত হলে সমস্ত সত্ত্বগুণ নষ্ট হয়ে যায়। তখন ভোগের জন্য ব্যাকুল মন খুঁজে পায় না তার প্রকৃত চরিত্রকে। রাশির উপরে শুভগ্রহের প্রভাব থাকলে জাতক জাতিকাদের মন চরিত্র সংসারজীবন ও অন্যান্য বিষয় সার্থক সুন্দর হয়ে ওঠে সবদিক থেকে।

সারাবছর ব্যবসায়ীদের কর্মক্ষেত্র চলবে একটা না একটা অস্বস্তির মধ্যে দিয়ে। একাধিকবার কোনও ভালো সুযোগ হাতছাড়া হওয়ার সম্ভাবনা। কর্মক্ষেত্রে কোনও অশান্তি মনকে অস্থির করে তুলতে পারে। মোটের উপর কর্মক্ষেত্রের সমস্ত ব্যাপারটা চলবে গুঁতিয়ে গুঁতিয়ে। পেশায় নিযুক্তদের ব্যাপারটা একই রকম। চাকুরিয়াদের কর্মক্ষেত্রে সময়টা জল ছাড়া কই-এর মতো।

বছরটা আয় ব্যয়ের সমতা রক্ষা করেই চলবে। সাধারণ নিয়মেই অর্থাগম হবে। অর্থভাগ্যের লক্ষণীয় পরিবর্তন কিছু হবে না। অর্থাগমের সুযোগ কিছু এসে তা নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা। পারিবারিক নানা কারণে অর্থ ব্যয় বাড়বে তবে আর্থিক ক্ষতির ভয় নেই।

স্বাস্থ্যের পক্ষে সময়টা চলবে সাধারণ নিয়মে। সাধারণ নিয়ম বলতে মাঝে মাঝে বেশ ভালো আবার কখনও বেশ কয়েকদিন দেহের আমেজটা নষ্ট হয়ে থাকবে। তবে স্বাস্থ্য নিয়ে বড় কোনও সমস্যার সময় নয় এখন তবে হবে হার্টের রুগীদের পক্ষে সময়টা উদ্বেগ সূচক।

এবছর সামান্য ছোট্ট কোনও ঘটনা বড় আকার ধারণ করে বাড়ির সকলের শান্তি নষ্টের কারণ হবে। সারা বছর আত্মীয় সমাগমে বিরক্ত হবেন। ব্যয় বাড়বে হু হু করে। অনিচ্ছা সত্ত্বেও দূরপাল্লার কোথাও বেড়াতে যেতে পারে। প্রতিষ্ঠা জীবনে শত্রু দ্বারা ক্ষতির ভয়।

নিজ কিংবা খুব নিকট কোনও আত্মীয়ের গৃহে একাধিকবার শুভ কর্মানুষ্ঠান হবে। সেই অনুষ্ঠানে আপনি নিমন্ত্রিত হবেন। দেবালয় ভ্রমণ হবে। বিদ্যার্থীদের শিক্ষায় অমনোযোগ বাড়বে। অত্যন্ত পরিচিতদের সঙ্গে মতবিরোধজনিত অশান্তিতে মনের স্বস্তি প্রায়ই নষ্ট হবে। ঝামেলার পরিস্থিতিটা সব সময় এড়িয়ে চলুন।

কোনও শুভ কর্মানুষ্ঠানের যোগাযোগ শেষ বেলায় ভেস্তে যাওয়ার সম্ভাবনা। পাওনা টাকা আটকে যাওয়া কিংবা দেরিতে পাওয়ার যোগ। সারা বছর শত্রুতা করে কেউ ক্ষতিসাধনে সমর্থ হবে না।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

গণেশের বাম হাতে দড়ির ফাঁস, পদ্ম, আর এক হাতে লাড্ডু আছে, এমন গণেশের ছবি সংগ্রহ করুন। প্রতিদিন স্নানের পর যে কোনও হলুদ রঙের ফুল চরণে দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। জল মিষ্টি দিতে পারলে ভালো, না দিলে ক্ষতি নেই। কোনও নিয়ম নেই।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

সারাটা বছর সার্বিকভাবে নিজেকে সুন্দর ও আনন্দময় রাখতে সাদা আর হলুদের উপর পোশাক বেশি ব্যবহার করতে চেষ্টা করুন। এই রং দুটো অর্থ ও সম্মান বৃদ্ধি করবে। ওই দুটো রঙের যে কোনওটাই বাড়ি ঘরে ব্যবহার করতে পারেন।

Advertisements

Check Also

Forest

ভরদুপুরে প্রেতাত্মাকে অবিকল মানুষের বেশে দেখা – শিবশংকর ভারতী

এবার সারা দেহটা জলে মিলিয়ে গেল সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে রোদের মধ্যে ব্যাপারটা ঘটে গেল যেন নিমেষে। সর্বাঙ্গ আমার ভারী হয়ে গেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *