Tuesday , June 25 2019
Bengali Horoscope Leo

সিংহ রাশির ২০১৯ বছরটা কেমন যাবে ও কি করলে ভালো থাকবেন – শিবশংকর ভারতী

পাঠক-পাঠিকাদের অবগতির জন্য বলি, এখানে যে প্রতিকার দেওয়া হল তা সারা জীবনের জন্য নয়। সাময়িক অস্বস্তিকর সময়ের হাত থেকে খানিকটা স্বস্তি পেতে। যখন সময়টা ধীরে ধীরে শুভ হয়ে উঠবে, তখন প্রতিকার না করলেও চলবে। করলে কল্যাণ কিছু হবে, না করলে ক্ষতি কিছু হবে না। প্রতিকারটা জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর – এক বছরের জন্য করতে পারেন।

প্রতিকারগুলো নিষ্ঠার সঙ্গে করলে ফল অবধারিত। অশ্রদ্ধা, অবিশ্বাস ও অভক্তিতে করলেও ফলের মার নেই। তবে ফল তাড়াতাড়ি না দেরিতে, তা নির্ভর করে ব্যক্তিগত জন্মকালীন সার্বিক গ্রহাবস্থানের উপর, যা বিশদ আলোচনা সাপেক্ষ।

রবির প্রভাবাশ্রিত উদ্ভাবনী শক্তির ধারক ও বাহক সিংহ রাশি। মানসিক শক্তির উৎসদাতা সিংহ রাশির জাতক জাতিকাদের মধ্যে থাকে বলিষ্ঠ গাম্ভীর্য। এরা জীবন পথে এগিয়ে চলে বাধাবন্ধহারা গতিতে। এদের মধ্যে রয়েছে দয়ামায়া, অনাশ্রিতকে আশ্রয়দান করার ক্ষমতা।এরা সব সময়েই কৃতজ্ঞ। দোষ স্বীকার করলে ক্ষমা করাই এদের জীবনের দস্তুর। ভোগের মধ্যে দিয়েই এদের ভগবানকে ডাকা। সব ছেড়ে তাঁকে চাই, এমন ভাবনা এ রাশির জাতক জাতিকারা স্বপ্নেও কল্পনা করতে পারে না। ভোগবাসনা চরিতার্থ না হলে এদের মানসিকতা নিম্নাভিমুখী হয়ে পড়ে। সন্তানভাবনা অতিমাত্রায়। রাগ ও স্পষ্টবাদিতার কারণে আত্মীয় ও বন্ধুর সংখ্যা খুবই কম। যে কোনও পরিবেশে প্রথম অবস্থায় নয়, পরে নিজেকে জাহির করার চেষ্টা। বিবাহিত জীবনে তমোগুণী শনির প্রভাবে এ রাশির জাতক জাতিকারা শতকরা একজনও শান্তি পেয়েছে কিনা সন্দেহ। সিংহ রাশির ডিভোর্সের সংখ্যা অন্য রাশির তুলনায় বেশি।

কর্মজীবনে ব্যবসার ক্ষেত্রে বছরটা খুব ভাল নয় আবার পড়ে মার খাওয়ার মতো নয়। তবে কর্মক্ষেত্রে সার্বিক চাপ বাধা আর অস্থিরতা একটা থাকবে। স্বাধীন পেশা বা চাকরি ক্ষেত্রে যারা আছেন তাদের সময়টা কাটবে গতানুগতিক ধারায়। মোটের উপর কর্মক্ষেত্রে সময়টা কাটবে বড্ড চাপের মধ্যে দিয়ে।

আর্থিক ব্যাপারে মানসিক চাপ আর অশান্তি একটা থেকে যাবে। প্রত্যাশিত অর্থাগমে বাধা হবে। আর্থিক যোগাযোগ ও কথাবার্তা হয়ে শেষ পর্যন্ত তা ভেস্তে যাওয়ার সম্ভাবনা প্রবল। মাত্রাতিরিক্ত ব্যয় চাপে অস্থির হয়ে উঠতে পারেন।

দেহ ও মন সারা বছর কম বেশি বিব্রত করবে। স্বাস্থ্যটা ভালো যাবে না। একটা না একটা লেগে থাকবে। বড় কোন ভয় নেই তবে স্বাস্থ্য স্বস্তিও দেবে না নিকট কোনও আত্মীয়দের স্বাস্থ্য তাৎক্ষনিকভাবে উদ্বেগ বাড়তে পারে।

বিদ্যার্থীদের পক্ষে সময়টা অনুকূলে নয়। প্রতিষ্ঠা ক্ষেত্রে শত্রুকে জয় করবে। কোনও আত্মীয়দের মানসিক শান্তি বিঘ্নিত হবে। কোনও অনাত্মীয়ের সহায়তালাভ হবে।

ধর্মভাব শুভ। সদগুরুর আশ্রিত হওয়ার যোগ। এ বছর মাঝে মাঝে কাছাকাছি কোথাও না কোথাও বেড়াতে যাবেন। উটকো ঝামেলা আর ব্যয় বাড়বে অসম্ভব। আত্মীয় প্রীতিতে বাধা।

এ বছর বহু আত্মীয় ও অনাত্মীয়ের বাড়ি নিমন্ত্রিত হবেন। আনন্দিত হবেন তবে যথেষ্ট অর্থ ব্যয়ও হবে নিমন্ত্রণ রক্ষার্থে। শত্রু ভয় নেই। বছরের শেষটা বেশ ভালোই কাটবে।

মাঝে মাঝেই কোনও উৎসাহবর্ধক সংবাদ মনকে আনন্দিত করবে। বাড়িতে কয়েকবার শুভ কর্মানুষ্ঠানের যোগ। নতুন কোনও পরিচয়ে উপকৃত না হলেও আনন্দিত হবেন। কোনও মাঙ্গলিক কর্মে অর্থদান করে একটা আত্মতৃপ্তি বোধ করতে পারেন। কোনও পরিচিত বা অপরিচিত ব্যক্তি আপনার মাধ্যমে কোনও ভাবে উপকৃত হবেন।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

নৃসিংহনাথের ফটো থাকলে ভালো, নইলে দক্ষিণেশ্বরের বা কালীঘাটে পাবেন। কিনবেন যে কোনও দিন, ঠাকুরের সিংহাসনে রাখবেন যে কোনও বৃহস্পতিবার। যেদিন রাখবেন সেদিন থেকে প্রতিদিন স্নানের পর দুটো ধূপকাঠি দিয়ে আরতি করে স্পর্শ প্রণাম করবেন তিনবার। তারপর বোঁটাসমেত একটা তুলসী নৃসিংহনাথের চরণে স্পর্শ করে খেতে পারেন, রেখেও দিতে পারেন। এতে সারা বছরের অনেক দুর্ভোগ কাটবে। উপোষের প্রয়োজন নেই। একটু জল মিষ্টি দিতে পারেন।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

লাল, গোলাপি, হলুদ, বাসন্তী রঙের পোশাক এই রাশির জন্য শুভ। শুভ প্রচেষ্টায় সাফল্য ও দেহমনের আনন্দদায়ক হবে। বাড়ি বা ঘরের জন্য এর যে কোনও একটা রং ব্যবহার করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *