Tuesday , March 19 2019
Bengali Horoscope Aquarius

কুম্ভ রাশির ২০১৯ বছরটা কেমন যাবে ও কি করলে ভালো থাকবেন – শিবশংকর ভারতী

পাঠক-পাঠিকাদের অবগতির জন্য বলি, এখানে যে প্রতিকার দেওয়া হল তা সারা জীবনের জন্য নয়। সাময়িক অস্বস্তিকর সময়ের হাত থেকে খানিকটা স্বস্তি পেতে। যখন সময়টা ধীরে ধীরে শুভ হয়ে উঠবে, তখন প্রতিকার না করলেও চলবে। করলে কল্যাণ কিছু হবে, না করলে ক্ষতি কিছু হবে না। প্রতিকারটা জানুয়ারি থেকে ডিসেম্বর – এক বছরের জন্য করতে পারেন।

প্রতিকারগুলো নিষ্ঠার সঙ্গে করলে ফল অবধারিত। অশ্রদ্ধা, অবিশ্বাস ও অভক্তিতে করলেও ফলের মার নেই। তবে ফল তাড়াতাড়ি না দেরিতে, তা নির্ভর করে ব্যক্তিগত জন্মকালীন সার্বিক গ্রহাবস্থানের উপর, যা বিশদ আলোচনা সাপেক্ষ।

শনির আনন্দময় স্থান বলা হয়ে থাকে কুম্ভ রাশিকে। দম্ভ অহংকার পরশ্রীকাতরতা এই রাশির জাতক জাতিকাদের চরিত্র বিরুদ্ধ। এগুলির আবির্ভাব ঘটলেই বুঝতে হবে এদের জীবনপ্রবাহ এগিয়ে যাচ্ছে দুর্ভোগময় জীবনের পথে। সাংসারিক সমস্ত দুঃখকে জয় করে যেমন পরমানন্দ লাভ করে, তেমনই অফুরন্ত আনন্দভাবে ভরপুর এই রাশি। বয়স বৃদ্ধির সঙ্গেই উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পায় অধ্যাত্মচেতনা। সংগ্রামী জীবনের পূর্ণতা আসে মধ্য বয়েসের পর। এরা ঈশ্বরভক্তিপরায়ণ হয়। যৌনজীবনে সংযমের প্রয়াসী। রাশির উপর অশুভ গ্রহের প্রভাব থাকলে সম্পূর্ণ বৈপরীত্য ঘটে এদের চরিত্রে। যে কোনও নিম্নস্তরের কাজ করতে অন্তরে এতটুকুও হেলদোল নেই। গুছিয়ে সুন্দর মিথ্যা বলায় এদের যেন জুড়ি নেই।

এ বছর কর্মজীবনে পেশা বা ব্যবসায় মাঝে মধ্যে বেশ উৎসাহ বোধ করবেন আবার কখনও নিরুৎসাহিত হবেন। তবে কর্মক্ষেত্রের সার্বিক অবস্থা থাকবে সুন্দর ও সচল। পেশায় যারা আছেন তাদের কর্মক্ষেত্রে আগের তুলনায় যোগাযোগ বেশ খানিকটা বাড়বে। চাকুরিয়াদের মনের অস্বস্তি বাড়বে বড্ড বেশি।

যথেষ্ট অর্থাগম যেমন হবে তেমন জলের মতো অর্থ ব্যয়ও হবে। নিয়মিত আয়ের তুলনায় যে কোনও ভাবে আয় অনেকটাই বাড়বে। কোনও নতুন যোগাযোগে আর্থিক উন্নতি হবে। গত বছরের তুলনায় এ বছর আর্থিক উন্নতির পথ অনেক সুগম হবে।

স্বাস্থ্যটা প্রায়ই বড্ড ভোগাবে। দেহ ও মনের কোনও স্বস্তি থাকবে না। একটা না একটা শারীরিক অস্বস্তি দেহ ও মনকে বড্ড বিব্রত করে রাখবে। স্বাস্থ্যের কারণে বেশ কিছু অর্থ নষ্ট হবে। স্বাস্থ্য সতর্কতা প্রয়োজন।

আপনি চেষ্টা করেন সময়ের কাজ সময়ে করতে, কথা দিলে কথা রক্ষা করতে, এ বছর আপনার নিয়ম নীতির বিরুদ্ধ ভাবাপন্ন মহিলা পুরুষ জুটবে বেশি, ফলে স্বাভাবিক কারণে পুরনো ও নতুন পরিচিতদের অধিকাংশের সঙ্গেই প্রীতির সম্পর্ক কারও সঙ্গে সাময়িক, কারও সঙ্গে চিরকালীন ছিন্ন হতে পারে। এ বছর নিয়ম নীতিহীন মানুষের সান্নিধ্যে আসবেন বেশি।

বছরে বেশ কয়েকবার কাছাকাছি ও দূরপাল্লায় ভ্রমণে যাবেন তবে দেহ বা মনের কারণে এক আধবার যাওয়ায় বাধা পড়তে পারে। তবে দেবালয়ে ভ্রমণ মাঝে মধ্যেই অব্যাহত থাকবে। এবছর অনেক ধর্মকামীরই দীক্ষালাভ হবে তবে মানুষের মনকে ক্রাইম করা ক্রিমিনাল ধর্মবিরোধী গুরুকে এড়িয়ে চলুন যারা এক ঘরে বসিয়ে একাধিক ধর্মার্থীকে একসঙ্গে দীক্ষা দেয়। দীক্ষা নেওয়ার আগে বিষয়টা জেনে নিয়ে পরে দীক্ষা নেওয়া কর্তব্য।

কোনও ভালো মানুষের সঙ্গলাভে নতুন কিছু জানতে ও শিখতে পারবেন। সম্মান ও যশের ক্ষেত্র প্রসারিত হবে। আগে যাওয়া হয়নি এমন জায়গা বা দেবালয়ের পেয়ে সেখানে যেতে পারেন। এ বছর নানান ধরণের বিভিন্ন দ্রব্য ও উপহার প্রাপ্তির সংখ্যা বাড়বে যেগুলি সত্যি একটু দামি। ভাল ও বেশি দামের জিনিস দেওয়ার লোকের সংখ্যা এখন নেহাতই কম। উদাহরণে বলি, যে সব পেন ব্যবহারের অনুপযুক্ত সেই সব পেন আমি প্রতিবছর গাদাগাদা উপহার পাই।

কি করলে একটু ভালো থাকবেন :

সম্ভব হলে মা কামাখ্যার একটা ফটো সংগ্রহ করুন। প্রতিদিন স্নানের পর তিনটে জবা দিয়ে তিনবার স্পর্শ প্রণাম করলেই হবে। উপোষের প্রয়োজন। জল মিষ্টি দিতে পারলে ভালো। আরও ভালো হয় প্রতি শনিবার একটা ডাব নিবেদন করে জলটা খেলে।

কি রঙের পোশাক পরবেন :

আর্থিক মানসিক সাংসারিক কর্ম ও প্রতিষ্ঠাজীবনে সুন্দরভাবে বছর কাটাতে আকাশী, সাদা, হালকা হলুদ, হালকা সবুজ রঙের পোশাক সর্বাঙ্গীণ অনেক স্বস্তি ও আনন্দ দেবে। বাড়ি ঘরের রং সাদার উপর রাখতে পারেন।

Advertisements

Check Also

Forest

ভরদুপুরে প্রেতাত্মাকে অবিকল মানুষের বেশে দেখা – শিবশংকর ভারতী

এবার সারা দেহটা জলে মিলিয়ে গেল সামনে প্রকাশ্য দিবালোকে রোদের মধ্যে ব্যাপারটা ঘটে গেল যেন নিমেষে। সর্বাঙ্গ আমার ভারী হয়ে গেল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *